রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

সোমবার ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৮:১১ অপরাহ্ণ

বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ চায় জবিসাস

প্রকাশিত : ০৭:০২ AM, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শুক্রবার ২৭২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থী ও ক্যাম্পাসে কর্মরত সাংবাদিক ফাতেমা তুজ জিনিয়াকে
বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কারের মাধ্যমে হয়রানিতে জড়িতদের শাস্তি, বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘আলোকিত বাংলাদেশ’ পত্রিকার সাংবাদিক ও বশেমুরবিপ্রবিসাস সভাপতি শামস জেবিনের উপর হামলা এবং ক্যাম্পাসে স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিত করা এবং উপাচার্য নাসিরুদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জবিসাস)।

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে জবি সাংবাদিক সমিতির নেতারা বলেন, ‘একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী জানার অধিকার রাখে ‘একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কি?’ -এই সামান্য বিষয় নিয়ে একজন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা যায় না। এটা নিয়মবহির্ভূত কর্মকাণ্ড। বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসন দাবি করেছে জিনিয়া তাদের ওয়েবসাইট এবং উপাচার্যের আইডি হ্যাক করেছে কিন্তু তারা সুনির্দিষ্ট প্রমাণ দিতে পারেনি। বরং তারা একজন প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির আলাপচারিতা জোর করে দেখে নিয়েছে যা সুস্পষ্ট মানবাধিকার লঙ্ঘন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। একজন শিক্ষার্থীর বাবা তুলে কথা বলে নিম্ন রুচির পরিচয় দিয়েছেন।’ এ সময় বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের বিভিন্ন অপকর্মের কথা উল্লেখ করে তার অপসারণ দাবি করা হয়।

এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক লতিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- দৈনিক করতোয়ার স্টাফ রিপোর্টার শাপলা সোমা,
সাংবাদিক সমিতির অর্থ সম্পাদক রবিউল আলম সাবেক সভাপতি আশরাফুল ইসলাম আকাশ, সভাপতি হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. নূরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। এর আগে
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসের জেরে গত ১১ সেপ্টেম্বর তাকে বহিষ্কার করা হয়। বহিষ্কারের পর উপাচার্য এবং জিনিয়ার কথোপকথনের একটি অডিও ফাস হয়। যার ভিত্তিতে পুরো দেশে এবং অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতি ও শিক্ষার্থীরা এর সমালোচনা শুরু করে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT