রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০২:৩৫ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ চাটখিলে ব্রাকের এডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত ◈ ঐতিহ্যের স্মারক বিক্রমপুর জাদুঘর ◈ মুক্তাগাছায় নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা গ্রেফতার ◈ মুক্তাগাছায় নিজ মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা গ্রেফতার ◈ কলমাকান্দায় যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ◈ তাহিরপুরে দুর্গাপূজা উদযাপন পরিষদের সাথে থানা পুলিশের মতবিনিময় ◈ ভালুকায় তিতাস গ্যাস অফিসের অনিয়ম-দুর্নীতি এখন ‘নিয়ম’ ◈ করোনার কারনে দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে এক প্রতিষ্ঠানের ৮৫ স্কুল ছাত্রী ◈ হামলার প্রতিবাদে শরীয়তপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের অবস্থান ◈ বেলান নদীর সাঁকো ভেঙে লাখো মানুষের ভোগান্তি

পেঁয়াজের দাম কমবে কি না, ব্যবসায়ীই শঙ্কায়

প্রকাশিত : ০৯:১৬ AM, ১ অক্টোবর ২০১৯ মঙ্গলবার ১৬৪ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

লাগামহীনভাবে বেড়ে যাওয়া দাম অন্তত ২ সপ্তাহের আগে কমার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন পেঁয়াজ আমদানিকারক ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা। তবে আমদানির পরও হাত বদল হওয়া ও দেশীয় মজুদদারদের কারণে পেঁয়াজের দাম কতটুকু কমবে তা নিয়েও নানা স্তরের ব্যবসায়ীদের মধ্যেই রয়েছে শঙ্কা। একাধিক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য
উৎপাদন কম হওয়ার অজুহাতে ২৯ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে ভারত। এই সুযোগে আমদানিকারকরা পাইকারি ব্যবসায়ীদের ফোন করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিতে বলেন। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর পর্যন্ত রাজধানীতে প্রতি কেজি পেঁয়াজের খুচরা মূল্য ছিল ৭৫ থেকে ৮৫ টাকা। বিভিন্ন আড়তে প্রতি কেজি পেয়াঁজের পাইকারি মূল্য ছিল ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) একদিনেরও কম সময়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকা পর্যন্ত।

লাগামহীনভাবে দাম বাড়ার বিষয়ে শ্যামবাজারের পেঁয়াজ আমদানিকারক কুদ্দুস সারাবাংলাকে বলেন, ‘ভারত রফতানি বন্ধ করে দেওয়ায় আমাদের দেশে লাগামহীনভাবে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। এখানে আমাদের কিছুই করার নেই। এদিকে মিয়ানমার থেকে সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পেঁয়াজ শ্যামবাজারে ঢুকেছে। তবে এই পেঁয়াজ দিয়ে চাহিদা মেটানো সম্ভব নয়। আমরা পর্যায়ক্রমে তুরস্ক, পাকিস্তান, মিশর ও মিয়ানমার থেকে আরও পেঁয়াজ আমদানি করব। সেই হিসেবে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম ২ সপ্তাহের আগে কমার কোনো সম্ভাবনা দেখছি না।’

শ্যামবাজারের আরেক পেঁয়াজ আমদানিকারক মোশাররফ সিকদার সারাবাংলাকে বলেন, ভারত সরকার পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ ঘোষণা করার সাথে সাথে আমার ট্রাকগুলো সেখানে আটকে গেছে। এখন আমার লোকসানে পড়তে হবে। এদিকে মিয়ানমার, তুরস্ক, মিশর ও পাকিস্তান থেকে দেশের বাজারে পর্যাপ্ত পরিমাণে পেঁয়াজ না আসা পর্যন্ত দাম কমার কোনো সম্ভাবনা নেই। সেই হিসেবে বলতে গেলে আনুমানিক ২ সপ্তাহের আগে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমছে না। ফলে যে দামে এখন বিক্রি হচ্ছে কিংবা এর চেয়ে বেশি দামেও পেঁয়াজ বিক্রি হতে পারে। কারণ দেশের বাজারে কয়েক হাত বদল হয়েই তো ভোক্তার হাতে পৌঁছায়।

এদিকে, শ্যামবাজারের পেঁয়াজ, রসুন সমিতির প্রচার সম্পাদক শহিদুল ইসলাম সারাবাংলাকে বলেন, ভারতীয় পেঁয়াজই মূলত দেশের বাজার নিয়ন্ত্রণ করে। অন্যদিকে, দেশীয় পেঁয়াজ সংরক্ষণকারীরাও সুযোগে দাম বাড়িয়েছে। ফলে আমাদের এখন আমদানি করা এবং দেশি পেঁয়াজ দুটোই পাইকারি ৮০ থেকে ৮৫ টাকা দরে বিক্রি করতে হচ্ছে। এখন এই দাম কমার সম্ভাবনা খুবই কম। কেননা সরকার যদি অন্য দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি না করে আর বাজারে যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে পেঁয়াজ না থাকে তাহলে দাম কমার সম্ভাবনা খুবই কম। তবে এক শ্রেণির ব্যবসায়ী রয়েছে তাদের কাছে পর্যাপ্ত মজুদ থাকার পরও তারা পেঁয়াজের সংকটের সুযোগে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে শিগগিরই দাম কমার সম্ভাবনা নেই।

এদিকে, কারওয়ানবাজারের খুচরা পেঁয়াজ ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক জানান, ২৯ সেপ্টেম্বর খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৭০ টাকা আর দেশি পেঁয়াজ ৭৫ টাকা দরে বিক্রি করেছেন। কিন্তু সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দেশি পেঁয়াজ পাইকারিতে ১০০ টাকা আর আমদানি করা পেঁয়াজও পাইকারিতে ১০০ টাকা দরে কিনেছেন। এখন তারা আমদানি এবং দেশি দুই ধরণের পেঁয়াজই ১১০ টাকা দরে বিক্রি করছেন। ফলে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়লে তাদেরও বেশি দামে যেমন কিনতে হয় তেমনি বেশি দামে বিক্রি করতে হয়।

এদিকে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের হিসাব মতে, ‍২০১৮-১৯ অর্থবছরে (জুলাই-জুন) দেশে পেঁয়াজের উৎপাদন হয়েছে ২৩ দশমিক ৩০ লাখ মেট্রিক টন। আর পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে ১০ দশমিক ৯২ লাখ মেট্রিক টন। ফলে মোট সরবরাহ হয়েছে ৩৪ দশমিক ২২ লাখ মেট্রিক টন। অন্যদিকে, দেশে বাৎসরিক পেঁয়াজের চাহিদা রয়েছে ২৪ লাখ মেট্রিক টন। ফলে দেশেই বাড়তি সরবরাহ রয়েছে প্রায় ১০ দশমিক ২২ লাখ মেট্রিক টন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT