রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শুক্রবার ০৭ মে ২০২১, ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ কোম্পানীগঞ্জে জেলেদের মাঝে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ ◈ ফরিদগঞ্জে প্রতিবন্ধী বৃদ্ধাকে ধর্ষণ করলো এক যুবক ◈ বরগুনার আমতলী থানা হতে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী র‌্যাব-৮, সিপিসি-১ (পটুয়াখালী ক্যাম্প) কর্তৃক গ্রেফতার ◈ ধামইরহাটে কাপড় ও মুদি দোকানে মোবাইল কোর্টে জরিমানা ◈ মৌলভীবাজারে শেষ হলো ভোক্তা অধিদপ্তরের বিশেষ সেবা সপ্তাহ; জরিমানা ৬৯ হাজার টাকা ◈ নরসিংদীর বেলাবতে এজাহার ভোক্ত আসামী গ্রেফতারঃ ◈ তাহিরপুরে বালুপাথর সহ ট্রাক,ষ্টীল বডি নৌকা ও ভারতীয় মদ ও কয়লা আটক ◈ কোটচাঁদপুর পৌর মেয়র নিজ অর্থায়নে ২নং পৌর ওয়ার্ডে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করলেন ◈ তাহিরপুরে চুরিতে বাঁধা দেওয়ায়,চোরের ছুরিঘাতে গ্রাম পুলিশ নিহত ◈ বুড়িচংয়ে আলী আহাম্মদ ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

পৃথিবীতেই রয়েছে মঙ্গল গ্রহের মতো এলাকা! নেই প্রাণীর অস্তিত্ব

প্রকাশিত : ০২:৩৩ PM, ২৪ নভেম্বর ২০১৯ রবিবার ১৪৫ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

পৃথিবীতেই নাকি এমন এক জায়গা রয়েছে, যেখানে জীবিত থাকার সম্ভাবনা প্রায় নেই।

সম্প্রতি ‘নেচার ইকোলজি অ্যান্ড ইভালুয়েশন’ নামক পত্রিকায় প্রকাশিত এক গবেষণায় এমনটিই দাবি ‘স্পেনিশ ফাউন্ডেশন ফর সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (এফইসিওয়াইটি)’- এর বিজ্ঞানীদের।

জায়গাটিকে পৃথিবীতে বসেই মঙ্গলগ্রহের স্বাদ নেয়ার উপযুক্ত বলে মত দিয়েছেন তারা।

গত কয়েক বছর ধরে প্রকৃতি ও প্রাণিবিজ্ঞানীরা একটি অনুসন্ধানবিষয়ক গবেষণায় নেমেছেন। যার উদ্দেশ্য হলো- ঠিক কী কী কারণে পৃথিবীর প্রাণী জগত একসময় ধ্বংস হয়ে পারে? সেই সম্ভাবনাগুলোকে খুঁজে বের করতে গিয়ে ইথিওপিয়ার ডলোল নামক একটি স্থানের খোঁজ পান বিজ্ঞানীরা।

তারা দেখেন, ইথিওপিয়ার ডলোল নামক এলাকাটি এতটাই উতপ্ত যে সেখানে মানুষ তো দূরের কথা অন্যান্য প্রাণীরও বসবাসের উপযোগী নয়।

তারা বলছেন, ওই এলাকার পানিতে প্রচুর পরিমাণে খারের উপস্থিতি রয়েছে। সে জন্য সেখানে বেঁচে থাকার বা জীবনের সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে। ডলোলের ঝিলগুলোতে কোনো মাইক্রো প্রাণের সন্ধান পাননি বিজ্ঞানীরা।

কতটা উত্তপ্ত এই ডলোল? বৈজ্ঞানিকরা জানিয়েছেন- শীতকালেও ওই অঞ্চলের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি থাকে। স্থানটি পৃথিবীতে অবস্থিত সবচেয়ে উষ্ণ এলাকার মধ্যে অন্যতম। এখানকার জলাশয়গুলোতে মাত্রাতিরিক্ত খার ও অ্যাসিডের উপস্থিত রয়েছে। এসব জলাশয়ের পানি খাওয়া তো দূরের কথা শরীরে লাগলেও ঝলসে যাবে। পানি এতটাই বিষাক্ত যে, কোনো মাইক্রো প্রাণের সম্ভবনাও পাওয়া যায়নি।

ডলোলের প্রাকৃতিক বৈচিত্র্যতা এমন কেন?

বৈজ্ঞানিকদের মতে, মঙ্গলগ্রহসদৃশ এলাকাটি একটি জীবন্ত আগ্নেয়গিরির মুখের ওপর অবস্থিত। প্রচণ্ড গরমের জন্য ওই আগ্নেয়গিরির মুখ থেকে ক্রমাগত ফুটন্ত পানি ও বিষাক্ত গ্যাস নির্গত হতে থাকে। তাই এলাকাকে অগ্নিগর্ভ বলে মন্তব্য করছেন তারা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT