রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১০:৪৯ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ ভূঞাপুরে চার মোটরসাইকেল চালককে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা ◈ কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নার্সদের অবহেলায় ২ শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ ◈ চিরিরবন্দরে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ ◈ শাহজাদপুর উপজেলা পরিষদের বেসিনে নেই সাবান-পানি, এক বছরেই ব্যবহার অনুপযোগী ◈ ফুলবাড়ীয়ায় হাত ভাঙা বৃদ্ধা ও হাসপাতাল শয্যায় অসহায় রোগীকে অর্থ সহায়তা প্রদান ◈ আড়িয়াল বিলে অস্থায়ী হাঁসের খামার ◈ সিঙ্গাইরে সুশিল সমাজ ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় ◈ আশুলিয়ায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যসামগ্রী তৈরি ◈ শ্রীনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাকেল আরোহীর মৃত্যু ◈ কালিগঞ্জের পল্লিতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মোটর সাইকেল মেকানিকের মৃত্যু
ঢাকা মহানগর আ.লীগের সম্মেলন শনিবার

পরিচ্ছন্ন নেতৃত্বের অপেক্ষা

প্রকাশিত : ০২:২৬ AM, ২৮ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ২৫৯ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

পরিচ্ছন্ন নেতৃত্ব পাওয়ার অপেক্ষায় আছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। ইতোমধ্যেই সরকারের গোয়েন্দা বিভাগ ও কেন্দ্রীয় কমিটির বিশেষ সেল সম্ভাব্য নেতৃত্ব সম্পর্কে সব ধরনের খোঁজখবর নিয়ে রেখেছে। আর এই নেতৃত্ব আসছে আগামী শনিবার। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেয়াদোত্তীর্ণ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন হবে। সম্মেলনে বর্তমানের অনেকেই বাদ পড়তে পারেন বলে গুঞ্জন রয়েছে দলের মধ্যেই।

নেতৃত্বের বিষয়ে আওয়ামী লীগের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, যারা দলের নাম ভাঙিয়ে রাতারাতি বাড়ি, গাড়ি ও অর্থবিত্তের মালিক হয়েছেন, যাদের কারণে বিগত দিনে দল ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ হয়েছে, যারা নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকার মধ্য দিয়ে দলকে বিতর্কিত ও বিব্রত করে সরকারকে বেকায়দায় ফেলেছেন, তাদের এবার দলে বা কোনো পদে থাকতে দেওয়া হবে না। এটা দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্পষ্ট নির্দেশ।

দলীয় সূত্র জানিয়েছে, বর্তমান কমিটি ও যারা আগামী নেতৃত্বে আসতে পারেন, তাদের সবার বায়োডাটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে রয়েছে। তার ইঙ্গিতেই নতুন কমিটির নেতৃত্ব নির্ধারণ হবে। তিনি ইতোমধ্যেই নেতাদের বিগত দিনের আমলনামা সংগ্রহ করে বিতর্কিত, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত ও অনুপ্রবেশকারীদের তালিকা করে তাদের দল থেকে বিদায় করার জন্যও নির্দেশ দিয়েছেন।

দলীয় সূত্র জানিয়েছে, এ ক্ষেত্রে উত্তরের ও দক্ষিণের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সে অনুযায়ী ইতোমধ্যে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের শীর্ষপদ পেতে দৌড়ঝাঁপের পাশাপশি অনেকে আবার বিদেশেও লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে এবার আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে রাজপথে থাকা ত্যাগী, পোড়খাওয়া এবং স্বচ্ছ নেতারা নেতৃত্বে আসছেন বলে জানা গেছে।

সে অনুযায়ী দক্ষিণে সভাপতি পদে আলোচনায় আছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি মেয়র সাঈদ খোকন, সাবেক খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও বর্তমান কমিটির সহসভাপতি, ৩২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু আহমেদ মান্নাফীকে দেখা যেতে পারে।

এ ছাড়া শীর্ষ পদে আলোচনায় রয়েছেন মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। তিনি এবার সভাপতি হতে চান। তবে তার নামে অর্থনৈতিক লেনদেনের মাধ্যমে পদবাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে। এ ছাড়া বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিলিপ রায়, বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম আশরাফ তালুকদার, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সাবেক ছাত্রনেতা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য কাজী নজিবুল্লাহ হিরো, দুঃসময়ের ছাত্রনেতা ও বর্তমান সূত্রাপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী আবু সাঈদ এবার দক্ষিণের শীর্ষ পদে আলোচনায় রয়েছেন।

এ ছাড়া আলোচনায় রয়েছেন তরুণ নেতা বর্তমান কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ওমর বিন আজিজ তামিম। আওয়ামী পরিবার থেকে আসা আজিজ তামিম, অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মরহুম এম এম আজিজের বড় ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। লন্ডন থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জনকারী তামিমের দাদা মরহুম পিয়ারো সরদার ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদদের স্মরণে প্রথম শহীদ মিনার তৈরি করেছিলেন।

জানতে চাইলে তামিম প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, আমরা পারিবারিকভাবে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে আছি, থাকব। আগামী দিনে সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ বিষয়ে গাজী আবু সাঈদ বলেন, ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালনের সময় ১/১১ আন্দোলন করার সময় ব্যাপক হামলা-মামলার সম্মুখীন হয়েছি। এখন সূত্রাপুর থানার দায়ি?ত্ব দিয়েছেন নেত্রী। সেই দায়িত্ব নেত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী পালন করছি। ?তি?নি যেখানেই দায়িত্ব দে?বেন, জীবন বাজি রেখে সেই দায়িত্ব পালন করব।

মহানগর উত্তরের সভাপতি পদে আলোচনায় আছেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, সহসভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এ কাদের খান। এ ছাড়া শীর্ষ পদে আলোচনায় আছেন মহানগরের দুই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি ও হাবিব হাসান। দুজনই ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবে পরিচিত। এ ছাড়া সাবেক ছাত্রনেতাদের মধ্যে এগিয়ে আছে বর্তমান কমিটির দফতর সম্পাদক এম সাইফুল্লাহ সাইফুল। তিনি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি ছিলেন। ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতিও ছিলেন সাইফুল।

নেতৃত্বের বিষয়ে কাদের খান বলেন, আগামীতে ত্যাগী, সৎ ও পোড়খাওয়া নেতাদের নেতৃত্বে আসা উচিত। তবে নেত্রীর (শেখ হাসিনা) সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ ত্রিবার্ষিক সম্মেলন হয়। এর ৩ বছর পর ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে উত্তর ও দক্ষিণে দুই ভাগে বিভক্ত করে পূর্ণাঙ্গ কমিটির ঘোষণা করা হয়। আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম মহানগর দুই অংশের ৪৫টি থানা, ১০০টি ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন। এই কমিটিতে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের সভাপতি করা হয় এ কে এম রহমতুল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক করা হয় মোহম্মদপুর এলাকার সাদেক খানকে। আর দক্ষিণে সভাপতি করা হয় পুরান ঢাকার হাজি আবুল হাসনাত ও সাধারণ সম্পাদক করা হয় শাহে আলম মুরাদকে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT