রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ মূল্য সমাচার ও আমাদের নির্ভরশীলতা! ◈ রাণীশংকৈলে দোকান ও প্রতিষ্ঠান কর্মচারী ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পূর্ণ ◈ ট্রেন দুর্ঘটনা:মানিকছড়িতে আজকের প্রজন্মের দোয়া মাহফিল ◈ বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু পরিষদ ইউ. এ. ই. কেন্দ্রীয় কমিটির স্মরণ সভা ◈ গাজীপুরে দুই স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির ◈ ভেদরগঞ্জ পৌরসভার প্রাণকেন্দ্র গুলোতে ময়লার ভাগাড় দেখার কেউ নেই ◈ ফরিদগঞ্জ পাইকপাড়ায় বসত ঘরে পুড়ে ছাই ◈ রিক্সায় ফেলে যাওয়া ২০ লাখ টাকা ফেরত দিলেন রিকশাচালক ◈ মোহনপুরে ফিল্যানন্সিং-আউটসোর্সিংয়ের উদ্বোধন ◈ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে যুব সমাজকে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে-এমপি রতন

নাগপুর থেকেই ‘মিশন পিঙ্ক’

প্রকাশিত : ০৬:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ৬ নভেম্বর ২০১৯ বুধবার ১৩ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :
alokitosakal

গোলাপি বলে খেলার প্রচলন বাংলাদেশে একেবারেই নেই। সেই সাত বছর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের ফাইনাল ম্যাচটি হয়েছিল গোলাপি বলে। এরপর গোলাপি বল কেনারই প্রয়োজন মনে করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ভারতের সব জায়গায় গোলাপি বলে খেলা না হলেও দুলিপ ট্রফিতে গোলাপি বলে খেলা হয় তিন বছর হয়ে গেছে। সেদিক থেকে একটু হলেও গোলাপি বলের চর্চায় পেছনে বাংলাদেশ। তার ওপর কলকাতা টেস্ট দিবারাত্রি আয়োজনের সিদ্ধান্তের পর ভারতের টেস্ট ক্রিকেটারদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে গোলাপি বল। উত্তর প্রদেশের নয়ডায় অনুশীলনও করছেন তারা। দিবারাত্রির টেস্ট সামনে রেখে টাইগাররা যে একেবারেই প্রস্তুতিতে নেই, তাও নয়। গত পরশু (সোমবার) থেকে ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গোলাপি বল নিয়ে নেমে পড়েছেন মুমিনুল হকরাও। আজ প্রস্তুতি সেরে শুক্রবার নাগপুরে জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দেবেন টেস্ট স্কোয়াডের সাত সদস্য। জাতীয় দলের কোচিং স্টাফের অধীনে নাগপুরেই হবে গোলাপি বলের আসল প্র্যাকটিস। বাংলাদেশ দল থেকে জানা গেছে, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এজন্য পর্যাপ্ত বল দিচ্ছে বিসিবিকে।

এই সিরিজে শুধু গোলাপি বলে নয়, লাল বলেরও খেলা আছে। ইন্দোরে প্রথম টেস্ট হবে লাল বলে। তাই শুধু গোলাপি বলের ওপর ফোকাস করাও বিপদ। লাল ও গোলাপি দু’ধরনের বলেই প্রস্তুতি নিতে হবে তাদের। বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে জানা গেছে, নাগপুরে লাল ও গোলাপি উভয় ধরনের বলেই তারা প্রস্তুতি নেবেন। ভারতীয় বোর্ড থেকে নাকি আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, নাগপুরে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা দিনের আলোতে লাল বলে অনুশীলন করবেন। আর ফ্লাডলাইটে তারা গোলাপি বলে অনুশীলন করবেন। ইডেন গার্ডেনসে কৃত্রিম আলোয় টেস্ট ম্যাচের জন্য দু’দিনের একটা প্রস্তুতি ম্যাচও পাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। দু’দিনের ওই দিবারাত্রির প্রস্তুতি ম্যাচ ইডেনে নামার আগে অনেক কাজে দেবে বলেই বিশ্বাস টিম ম্যানেজমেন্টের।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এরই মধ্যে ভারতের এসজি কোম্পানির কাছ থেকে গোলাপি বল কিনেছে। সেগুলো দেশে পৌঁছানোর পর প্রস্তুতি শুরু করেছেন ইমরুল কায়েসরা। সময় কম হলেও ঢাকার প্রস্তুতিটা ক্রিকেটারদের কাজে দেবে। টি২০ স্কোয়াডে থাকা টেস্ট দলের সদস্যদের গোলাপি বলের সুবিধা-অসুবিধাগুলো বলতে পারবেন তারা। টেস্টের পরিকল্পনা করতে কোচিং স্টাফরাও বার্তা নিতে পারবেন। মুমিনুল হক, ইমরুল কায়েস, মেহেদী হাসান মিরাজ, সাদমান ইসলাম, নাঈম হাসান, সাইফ হাসান ও এবাদত হোসেন দেশে জাতীয় লিগের ম্যাচ খেলছিলেন। সবচেয়ে ভালো প্রস্তুতি হতে পারত জাতীয় লিগের কোনো এক রাউন্ড গোলাপি বলে দিবারাত্রির ম্যাচ করা গেলে। মুমিনুল-এবাদতরা ম্যাচের বাস্তবতা বুঝে টেস্টের জন্য তৈরি হতে পারতেন।

দিবারাত্রির টেস্ট আয়োজনের সব প্রস্তুতি নেওয়া হলেও এসজির গোলাপি বল কতটা সহায়ক হবে, তা দেখার বিষয়। দুলিপ ট্রফির জন্য তৈরি গোলাপি বল নিয়ে সন্তুষ্ট ছিল না বিসিসিআই। টেস্টের বলের মান ভালো হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে এসজি কোম্পানি। ব্যাপক পরিমাণে বল তৈরি করা হচ্ছে বলে বিসিসিআই সূত্রে জানা গেছে। তবে প্রস্তুতি আর ম্যাচ বল ভিন্ন হলে বিপদে পড়বে বাংলাদেশ। স্বাগতিক হওয়ার সুবিধা কাজে লাগাতে ভারত টেস্টের বলেই প্রস্তুতি নিচ্ছে। সেদিক থেকে বাংলাদেশ একটু হলেও ব্যাকফুটে থেকে খেলবে দিবারাত্রির টেস্ট। স্বস্তির ব্যাপার, বাংলাদেশ ও ভারত দু’দলেরই প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট ম্যাচ হবে এটি। এমন একটি ঐতিহাসিক টেস্ট ম্যাচ খেলার আগে প্রস্তুতি নিয়ে নামতে পারলে ভালো হতো। সিরিজ শুরুর ঠিক আগে সিদ্ধান্ত হওয়ায় সেটা আর সম্ভব হচ্ছে না। এর পরও বলতে হবে, বিসিসিআই সর্বাত্মক সহযোগিতা দিচ্ছে বাংলাদেশ দলকে। বিশেষ করে গোলাপি বল কিনতে এবং নিজেদের ভান্ডার থেকে তারা বল সরবরাহ করছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT