রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ ধামইরহাটে সোনার বাংলা সংগীত নিকেতনের বার্ষিক বনভোজন ◈ ধামইরহাটে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ◈ পত্নীতলায় করোনা সচেতনতায় নারীদের পাশে তথ্য আপা ◈ ফুলবাড়ীয়া ২ টাকার খাবার ও মাস্ক বিতরণ ◈ কাতারে ফেনী জেলা জাতীয়তাবাদী ফোরামের দোয়া মাহফিল ◈ হাসিবুর রহমান স্বপন এমপির রোগ মুক্তি কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত ◈ দৈনিক আলোকিত সকালের ষ্টাফ রিপোর্টার আশাহীদ আলী আশার ৪৩তম জন্মদিন পালিত ◈ সাবেক সেনা কর্মকর্তা ও ফুটবলার রফিকুল ইসলাম স্মরণে দোয়া ও মিলাদ আজ ◈ লক্ষ্মীপুর জেলার শ্রেষ্ঠ ও‌সির পুরস্কার পে‌লেন ও‌সি আবদুল জ‌লিল ◈ কাতার সেনাবাহিনীর বিপক্ষে বাংলাদেশের পরাজয়
ভক্তবৃন্দের মাঝে আনন্দ উৎসবের আমেজ

নবীগঞ্জে ৫দিন ব্যাপী ৯৬টি পুজামন্ডপে শারদীয় দূর্গাপুজা পূজা শুরু

প্রকাশিত : ১১:৩৭ PM, ৪ অক্টোবর ২০১৯ Friday ২০০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

নবীগঞ্জ বাঙ্গালী হিন্দুদের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজার আগমনে সকল হিন্দু ধর্মালম্বিদের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে। উপজেলাধীন ১৩টি ইউনিয়নে ৮৮টি, পৌরসভায় ৮টি মিলে ৯৬টি পূজার মন্ডপে সনাতন ধর্মাবলম্বী হিন্দু স¤প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দূর্গাপুজার সকল প্রস্তুতি শেষ করে শুরু হয়েছে ষষ্টীপুজা। আর ষষ্টী পুজার মধ্য দিয়ে পুজার আনুষ্টানিকতা শুরু হয়। উপজেলায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীসহ সকল পুজারী ও ভক্তবৃন্দের মধ্যে আনন্দ উৎসাহ উদ্দীপনা সহ শহর, ইউনিয়ন ও বিভিন্ন পুজা এলাকার বাজার জুড়ে সাজসাজ রব বিরাজ করছে। আনন্দময়ীর আগমনে ধনী- গরিব সকল শ্রেনী পেশার লোকজন ও ভক্তবৃন্দের মধ্যে আনন্দের কোন অংশেই কমতি নেই।

হিন্দু শাস্ত্রমতে জানা যায়, এ বছর দেবী ঘোটকে আগমন ও গোটকে গমন করবেন। সমাজের সকল আসুরিক শক্তির বিনাশ সাধন করে সর্বত্র শান্তি স্থাপনের মুলমন্ত্রই হলো শারদীয় দুর্গাপুজা। সারা দেশের ন্যায় এ বছরও নবীগঞ্জ উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে ৮৮টি পূজামন্ডপ সহ ৮টি পৌরসভার মন্ডপে সারম্বরে পূজা অনুষ্টিত হবে। প্রত্যেক পূজা মন্ডপের সেচ্ছাসেবকদের পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে। নবীগঞ্জ পৌর সভার গোবিন্দ জিউড় আখড়া পুজা মন্ডপ, লোকনাথ আশ্রম পুজা মন্ডপ, শিবপাশা সন্ন্যাস পুজা মন্ডপ, গয়াহরি প্রগতি সংঘ পুজা মন্ডপ, জয়দুর্গা পুজা মন্ডপ, গীতা সংঘ পুজা মন্ডপ, পূর্ব তিমিরপুর পুজা মন্ডপ, মিঠাপুর বটতলা পূজা মন্ডপ সহ উপজেলার সবকটি পুজা মন্ডপেই পূজার সকল প্রস্তুতি সকল আনুষ্টানিকতার সম্পন্ন হয়। শুক্রবার ৪ অক্টোবর সকাল থেকে ৫ দিন ব্যাপী শারদীয় দূর্গাপুজা শুরু হয়েছে। মহা ষষ্ঠীপুজার মধ্য দিয়ে নবীগঞ্জের সকল পুজা মন্ডগুলোতে নানা উৎসব। মঙ্গলবার মহা বিজয়া দশমীবিহিত পুজা ও দেবী বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পূজার কাজ সম্পন্ন হবে।

জানা যায়, ব্যক্তি বা বারোয়ারীর সীমা ছাড়িয়ে দূর্গাপূজা আজ পরিনত হল সার্বজনীন মহা শারদীয় উৎসবে। ভারতবর্ষে বৃট্রিশ বিরোধী আন্দোলন যখন জোরদার হয়ে উঠল ঠিক তখনই মহাত্মা গান্ধীর অহিংস আন্দোলনের পাশাপাশি সশস্ত্র বিপ্লবের পথে স্বাধীনতা অর্জনের প্রচেষ্টাও চলল সমানে তালে। ইংরেজদের নজর এড়াতে দুর্গোৎসবকে ঢাল হিসাবে ব্যবহার করতে লাগল বিপ্লবীরা। ধর্মীয় অনুষ্টানে ছদ্মাবরনে বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষকে সংঘবদ্ধ করার একমাত্র উপায় ছিল এই শারদীয় দূর্গাপুজা। কালের পরিক্রমায় বৃট্রিশ শাসনের অবসান হল। বিভাজিত হয়ে পড়ল অবিভক্ত বাংলা। পাকিস্তান অপশাসনের বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রাম শেষে বাংলার পুর্বাঞ্চল সহ রুপান্তরিত হল বাংলাদেশ নামের একটি নতুন স্বাধীন রাষ্ট। আর বাংলাদেশের সিংহভাগ মানুষের অসাম্প্রদায়ীক প্রবনতা শারদীয় দূর্গাৎসবকে আজ পরিনত করল প্রকৃত অর্থেই বাঙ্গলীর সার্বজনীন উৎসবে। এই ৫দিনের পূজা যথাক্রমে দূর্গষষ্টী, মহাসপ্তমী, মহাষষ্টী, মহানবমী ও বিজয়া দশমী নামে পরিচিত। দূর্গাপূজার ৫দিনসহ সমগ্রপক্ষটিকে দেবীপক্ষ নামে আখ্যায়িত করা হয়। আর দেবী পক্ষের সূচনা হয় পূর্ববর্তী অমাবশ্যার দিন থেকে। আর এই দিনই “মহালয়া” নামে পরিচিত। অপরদিকে দেবীপক্ষের সমাপ্তি হয় পঞ্চদশ দিন পর্যন্ত অর্থাৎ পূর্ণিমায়। আর এদিনটি কোজাগরী পূর্ণিমা নামে পরিচিত এবং বার্ষিক লক্ষীপূজার দিন হিসাবেও গন্য হয়। দূর্গাপূজা মূলত পাঁচ দিনের অনুষ্টান হলেও মহালয়া থেকেই প্রকৃত উৎসবের সূচনা ও কোজাগরী লক্ষীপূজায় হয় তার সমাপ্তি। সার্বজনীন দূর্গাপূজা এলেই বাঙ্গালী হিন্দু স¤প্রদায়ের সকলের মধ্যে শান্তির বার্তা বয়ে আনার মূল উদ্দেশ্যই শারদীয় দূর্গাপুজার। শুধু হিন্দু লোকজনই নয় সমগ্র বাঙ্গলী জাতিই মেতে উঠে শারদীয় উৎসবের আনন্দে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT