রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
◈ পাওনা টাকা চেয়ে অপমানিত হওয়ায় অভিমানে গৃহবধুর বিষপানে আত্মহত্যা ◈ আবরার হত্যার বিচারকার্য দ্রুত সম্পন্ন করা হোক : ◈ গৌরীপুরে পিইসি পরীক্ষায় অনুপস্থিত ৩৯৭ শিক্ষার্থী ◈ বকশীগঞ্জে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের নামে যুবলীগ নেতার চাঁদাবাজী! ◈ কেশরহাট পৌর আওয়ামীলীগের জরুরী সভা,ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাহিন ◈ দুপচাঁচিয়ায় রাজনৈতিক সংস্কার ও সচেতনতা সৃষ্টির র লক্ষ্যে গোলটেবিল নাগরিক সংলাপ ◈ মোহনগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসানকে সংবর্ধনা ◈ রংপুর সদর উপজেলা আ’লীগের কবির সভাপতি,হালিম সম্পাদক ◈ এমপি মানিকের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করায় নুরুল হুদা মুকুটকে আ’লীগ থেকে বহিষ্কারের দাবি ◈ সীতাকুন্ডের ভাটিয়ারী ইউনিয়ন আ’লীগের কাউন্সিল সম্পন্ন, সভাপতি নাজিম সম্পাদক জসিম

নগরে ভোটের হাওয়া

প্রকাশিত : ০৮:০৪ পূর্বাহ্ণ, ৭ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ৩৩ বার পঠিত

অনলাইন নিউজ ডেক্স :
alokitosakal

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী জানুয়ারি মাসে। তফসিল ঘোষণা হবে চলতি মাসের শেষের দিকে। গত রোববার নির্বাচন কমিশনের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সিটি নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশনের বৈঠকের পরই নগরজুড়ে ভোটের হাওয়া বিরাজ করছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বর্তমান জনপ্রতিনিধিদের মেয়াদ শেষ হবে আগামী বছরের ১৩ মে। আর দক্ষিণের শেষ হবে ১৬ মে। আইন অনুযায়ী, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যেই সম্পন্ন করতে হবে নির্বাচন। সেই হিসেবে নির্বাচনের ক্ষণ গণনা শুরু হবে চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে।

জানা গেছে, ঢাকার দুই সিটির আগামী নির্বাচন হবে ইভিএমের মাধ্যমে। এজন্য সরকার চায় নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হোক, যাতে নির্বাচন কিংবা ইভিএম নিয়ে কেউ প্রশ্ন তুলতে না পারে। নির্বাচন সুষ্ঠু হবে সরকারের এমন মনোভাবের পর বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে ইতিবাচক চিন্তা করছে। সেজন্য তারা শক্ত প্রার্থী দেওয়ার কথা ভাবছে, যাতে জয়লাভ করা যায়। সে হিসেবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ঠিক এক বছর পর জানুয়ারিতে ফের মুখোমুখি হচ্ছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকা ও ধানের শীষের জমজমাট লড়াই দেখার অপেক্ষায় দেশবাসী।

এবার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী পদে পরিবর্তন আসতে পারে-এমন আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এক্ষেত্রে উত্তরের মেয়র নিরাপদ থাকলেও ঝুঁকিতে আছেন দক্ষিণের মেয়র। তবে এ বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। অপরদিকে দুই সিটিতেই তরুণ প্রার্থীকে প্রাধান্য দিচ্ছে বিএনপি। উত্তরে গতবারের প্রার্থীই বহাল থাকলেও দক্ষিণে আসতে পারে নতুন মুখ। তবে দক্ষিণে কে এগিয়ে আছেন তা জানা যায়নি।

দুই সিটির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের নিজ এলাকায় সামাজিক কর্মকা-সহ গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে ভোটারদের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন দলীয় হাইকমান্ড। কেন্দ্রের নির্দেশ পেয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনের প্রস্তুতিও শুরু করেছেন। নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়সহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ও করছেন কেউ কেউ। নিজ নিজ প্রার্থীর পক্ষে তাদের সমর্থকরা পোস্টার ছাপানোসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচার চালাচ্ছেন। বসে নেই কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। তারাও মাঠ গরম করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, আগামী জানুয়ারি মাসের শেষ দিকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির ভোট হবে। দুই সিটির ভোট একদিনে করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ১৫ নভেম্বরের পর তফসিল ঘোষণা করা হবে। দুই সিটিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, ঢাকাকে বিশ্বের অন্যতম আধুনিক নগরীতে পরিণত করার পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে সরকার। উন্নয়ন বাস্তবায়নে ঢাকার কর্তৃত্ব হাতছাড়া করতে চান না ক্ষমতাসীনরা। তাছাড়া আগামী ২০২০-২১ সালকে মুজিববর্ষ ঘোষণা করা হয়েছে। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। এর পরের বছর উদযাপিত হবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। এ দুটি বড় জাতীয় উৎসবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের সক্রিয় ভূমিকা চান দলের নীতি-নির্ধারকরা। এদিকে দুই সিটিতেই দলের প্রার্থীর ছড়াছড়ি। নির্বাচনের ডামাডোল শুরুর আগেই অনেকে অনানুষ্ঠানিক জনসংযোগ হিসেবে দলীয় বিভিন্ন কর্মসূচি, সামাজিকতায় অংশ নিচ্ছেন।
আওয়ামী লীগে আলোচনায় রয়েছেন অর্ধডজন রাজনৈতিক এবং ব্যবসায়িক নেতা। উত্তরে বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম ছাড়াও আলোচনায় রয়েছেন- প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের স্ত্রী বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক, ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদম তমিজী হক প্রমুখ। দক্ষিণে বর্তমান মেয়র সাঈদ খোকন ছাড়াও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নজীবুল্লাহ হিরু, অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এম এ আজিজের ছেলে ও মহানগর দক্ষিণের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ওমর বিন আবদুল আজিজ, সাবেক এমপি ও বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দীন, এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি শফিউল আলম মহিউদ্দিনের নাম আলোচনায় রয়েছে।

আর বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনে সাবেক মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার ছেলে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন খোকা, মির্জা আব্বাসের স্ত্রী ও মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস এবং বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিব-উন-নবী খান সোহেল। আর ঢাকা উত্তরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল, যুবদল সভাপতি সাইফুল আলম নীরবের নাম শোনা যাচ্ছে।

ঢাকা সিটি নির্বাচনের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান বলেছেন, আওয়ামী লীগ সব সময় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের জন্য আমরা ৫ বছর ধরেই কাজ করছি। আমাদের মেয়র-কাউন্সিলররাও কাজ করেছে। কিছু কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে। তাদের আমরা কোনো ধরনের সমর্থন বা সহায়তা দেইনি। দলের গঠনতন্ত্র ও দেশের আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। কেউ অপরাধ করলে আওয়ামী লীগ তাদের সমর্থন দেয় না। আগামী দিনেও দেবে না।

এ বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা সিটিসহ অন্যান্য নির্বাচনে অংশগ্রহণের বিষয়ে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করছি। তবে প্রার্থীর ব্যাপারে এখনো চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তফসিল ঘোষণার পর দলীয় ফোরামে আলোচনা করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ ও প্রার্থীর ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT