রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ০৫ আগস্ট ২০২১, ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৬:০৩ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ লাইটার নির্বাচন : আগামীকাল ভোট, আজ প্রেসিডেন্সিয়াল ডিবেট! ◈ অ্যাম্বুলেন্সে ৮৫ কেজি গাঁজা, গ্রেপ্তার ১ ◈ ফুলবাড়িয়ায় জেল থেকে বেড়িয়ে আবারও প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের হুমকি ◈ টাংঙ্গুয়ার হাওরে অর্ধলক্ষাধিক টাকার নিষিদ্ধ কোনাজাল আটক ◈ ভাসানচর থেকে পালিয়ে আসা ১৪ রোহিঙ্গা কোম্পানীগঞ্জে আটক ◈ রংপুরে অসহায় -দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন জেলা আ’লীগ নেতা মওলা ◈ নরসিংদীর মেহমানখানা পেট ভরে খেল আড়াই শতাধিক অনাহারী ◈ পরীমনি আটক, বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ ◈ রায়পু‌রে শুরু হ‌লো স‌ম্মি‌লিত স্বেচ্ছা‌সেবী‌ প‌রিবা‌রের ফ্রি অ‌ক্সি‌জেন সেবা ◈ পোরশায় শোক দিবস পালন উপলক্ষে মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভা অনুষ্ঠিত হয়

দুষ্প্রাপ্য ক্যাশিয়া

প্রকাশিত : ০৭:০১ AM, ৩ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ৩০০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

পৃথিবীজুড়ে ক্যাশিয়ার অনেক প্রজাতি ছড়িয়ে আছে। আমাদের দেশেও অনেক জাতের ক্যাশিয়া দেখা যায়। তার কোনো কোনোটি একেবারেই বুনো। এটি ঔষধি হিসেবে পরিচিত। নাম ক্যাশিয়া অ্যালাটা, স্থানীয় নাম দাদমর্দন। তবে ক্যাশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিচিত ক্যাশিয়া ফিস্টুলা। যার খ্যাতি সোনালু, সোনাইল বা বানর লাঠি নামে। মালয়েশিয়ার পথতরু হিসেবে পরিচিত ক্যাশিয়া গ্লাওকা আমাদের দেশে নতুন এসেছে। পৌষ্পিক ঐশ্বর্যের কারণে ক্যাশিয়ার আকর্ষণ উপেক্ষা করা কঠিন। এখানকার রাজসিক ক্যাশিয়াগুলো সাধারণত গ্রীষ্ফ্মেই ফোটে। লাল সোনাইল বা ক্যাশিয়া জাভানিকাও মে মাসে ফোটে। তবে আলোচ্য ক্যাশিয়াটি তুলনামূলক দুর্লভ। তা ছাড়া গাছটির সঠিক পরিচয়ও ছিল অজানা।

ঢাকায় হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে ক্যাশিয়া ব্যাকেরিয়ানা (Cassia bakeriana) জাতের এই ফুল দেখে ক্যাশিয়া রেনিজেরাও মনে হতে পারে। হাইকোর্ট এলাকা ছাড়া গুলশান শুটিং ক্লাব এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হাতেগোনা কয়েকটি গাছ দেখা যায়। দুর্লভ এই গাছের চারা কলম করে বিভিন্ন উদ্যানে ছড়িয়ে দেওয়া প্রয়োজন। প্রকৃতিতে যখন অন্যান্য ক্যাশিয়ার পুষ্পপ্রাচুর্য শেষ হয়ে আসে, তখন ক্যাশিয়া ব্যাকেরিয়ানা ফোটে। ইংরেজি নামPink Shower Tree এবং Coral Shower Tree ইত্যাদি।

মাঝারি আকৃতির পত্রমোচি গাছ, ২০ থেকে ৩০ মিটার পর্যন্ত উঁচু হতে পারে। পাতা পিনেট, ৫০ সেমি লম্বা। বসন্তের শেষভাগে পত্রহীন ডালে পুষ্প-প্লাবনে ভরে ওঠে গাছ। ফুল মৃদু সুগন্ধি, গড়ন সোনালু বা লাল সোনাইলের মতো। পাপড়ি প্রথমে লালচে গোলাপি, পরে হয় ফ্যাকাসে সাদা। মেক্সিকো, ভেনিজুয়েলা, ইকুয়েডর ও ব্রাজিলে এ গাছ প্রচুর দেখা যায়। পথতরু হিসেবে আদর্শ। জন্মস্থান দক্ষিণ আমেরিকা। পরিবার Caesalpinaceae।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT