রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৪:১১ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ মোহাম্মদ অংকন এর কিশোর গল্পগ্রন্থ দুষ্টু কিশোরদের কাণ্ড ◈ গোবিন্দগঞ্জের বাইগুনীতে বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট এর অভিযান ◈ শ্রীনগরে আলুর জমিতে কাজ করে বাড়তি আয় ◈ নবীনগরে বড়িকান্দিতে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে চাচা বাতিজার মৃত্যু ◈ বান্দরবান শহরে অগ্নিকাণ্ডে বসতঘর আগুনে পুড়ে ছাই ◈ বড়াইগ্রাম পৌর নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি দুই মেয়র প্রার্থীই বৈধ ◈ নবীগঞ্জে পণ্যবাহী ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বসত ঘরে, আহত ২,চালক পলাতক ◈ শাহজাদপুরে ব্যাতিক্রমী স্বেচ্ছাসেবীদের সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠিত ◈ না:গঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের আলোচনা সভা ও খাবার বিতরণ ◈ ধামইরহাটে নৌকার বিজয় নিশ্চিতে উঠান বৈঠক, শীতকে উপেক্ষা করে নারী ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি

দুবাইয়ে গ্রেফতার শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান

প্রকাশিত : ০৬:৩৯ AM, ৪ অক্টোবর ২০১৯ শুক্রবার ১৯৯ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

ঢাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী এবং ইন্টারপোল রেড নোটিশধারী পলাতক আসামি জিসানকে দুবাইয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার (২ অক্টোবর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইন্টারপোল বাংলাদেশ শাখার ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (এআইজি) মহিউল ইসলাম । তাকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) এআইজি মহিউল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, দুবাইয়ের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এনসিবির পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে। তারা আমাদের জিসানের গ্রেফতারের বিষয়ে জানিয়েছেন। আমরা তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরী করছি।

তিনি বলেন, ‘ইন্টারপোলের মাধ্যমে দুবাই কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বাংলাদেশ যোগাযোগ করছে। তারা জানিয়েছে যে, জিসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, দুবাই কর্তৃপক্ষ তাকে (জিসানকে) যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তরের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জানা গেছে, জিসান একটি ভারতীয় পাসপোর্ট বহন করছে। সেখানে তার নাম বলা হয়েছে আলী আকবর চৌধুরী।

উল্লেখ্য, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘোষিত দেশের গত এক দশকের শীর্ষ ২৩ সন্ত্রাসীর একজন হলো জিসান। তাকে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল। রাজধানীর গুলমান, বনানী, বাড্ডা, মতিঝিলসহ বেশ কিছু অঞ্চলে তার একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল। ব্যবসায়ীদের কাছে চাঁদাবাজি ও টেন্ডারবাজি করতো সে। ইন্টারপোল তার নামে রেড অ্যালার্ট জারি করে রেখেছে। সংস্থাটির ওয়েবসাইটে জিসান সম্পর্কে বলা আছে, তার বিরুদ্ধে হত্যাকাণ্ড ঘটানো এবং বিস্ফোরক বহনের অভিযোগ আছে।

সাম্প্রতিক দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে দুই যুবলীগ নেতা জিকে শামীম ও খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে আটকের পর তার (জিসানের) নাম ফের নতুন করে আলোচনায় আসে। তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে বলে জানা গেছে।

২০০২ সালে মালিবাগের সানরাইজ হোটেলে ডিবির দুই ইন্সপেক্টরকে সরাসরি হত্যা করে আলোচনায় আসে জিসান। এর পরে দীর্ঘ সময় আত্মগোপনে থাকে জিসান। ২০০৫ সালে জিসান ভারতে চলে যায়। সেখানে ২০০৯ সালে কোলকাতা পুলিশের হাতে আটক হয় জিসান। সেখান থেকে ছাড়া পাওয়ার পরে কোলকাতায় বসেই নিয়ন্ত্রণ করতেন ঢাকার চাঁদাবাজি। জিসান ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে দুবাই যায় বছর দুয়েক আগে। আর এর পরে সেখান থেকেই ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতো জিসান। মালিবাগ, মগবাজার, খিলগাঁও এলাকার আলোচিত সন্ত্রাসী জিসান বিরুদ্ধে ঢাকায় একাধিক হত্যা ও চাঁদাবাজির মামলা রয়েছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT