রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

মঙ্গলবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

শিরোনাম

থমথমে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

প্রকাশিত : ০৩:৪৪ AM, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শনিবার ৫৩৫ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীদের দেশীয় ও ভারী অস্ত্র হাতে মহড়া সেই সাথে ক্যাম্পাসে বহিরাগত ক্যাডারদের দেখা গেছে।

জানা যায়, শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে বহিরাগতদের নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে ইবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব। বিষয়টি জানতে পেয়ে বঙ্গবন্ধু হলসহ বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেয় ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের শতাধিক নেতাকর্মীরা। পরে সাধারণ সম্পাদক রাকিব জিয়া মোড়ে কিছু সময় অবস্থান নিয়ে ক্যাম্পাসের বাহিরে গিয়ে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কে অবস্থান নেয়।

এদিকে বিকেল ৫টার দিকে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি -সম্পাদকের একটি গ্রুপ লালন শাহ হল থেকে শেখ রাসেল হলের দিকে অগ্রসর হলে বিদ্রোহী গ্রুপের নেতাকর্মীরা তাদের ধাওয়া দেয়। এতে তারা ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়।

পরে বিদ্রোহী গ্রুপের শতাধিক নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে প্রধান ফটকের দিকে এগিয়ে যায়। এসময় তারা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

এসবের একপর্যায়ে তারা(বিদ্রোহী গ্রুপ) প্রধান ফটক পার হয়ে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কে অবস্থানরত সাধারণ সম্পাদকের কর্মীদের ধাওয়া করে। এতে তারা ছত্র ভঙ্গ হয়ে এদিক সেদিক পালিয়ে যায়। পরে প্রধান ফটকের সামনেই এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা কর্মীরা। সমাবেশ শেষে তারা মিছিল নিয়ে স্লোগান দিতে দিতে ক্যাম্পাসে ঢুকে। এরপর তারা সন্ধ্যা ৭ টার দিকে জিয়া মোড়ে এসে আবার সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

এদিকে এই ঘটনায় ক্যাম্পাসে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটি ভীতিকর পরিস্থিতি লক্ষ করা যাচ্ছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকিদাতা বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর গ্রেফতার ও শাস্তি দাবিতে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দিয়েছে ইবি ছাত্রলীগের দু’পক্ষ। ফলে এনিয়েও বাড়তি ভীতি দেখা দিয়েছে নেতাকর্মী ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে।

এ বিষয়ে সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব বলেন, আমি আগামীকালের প্রোগ্রামের জন্য নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলতে ক্যাম্পাসে গিয়েছিলাম। আমি কয়েক মিনিট সেখানে থেকে বাইরে চলে এসেছি।

আর ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত বলেন, সাধারণ সম্পাদক রাকিব বহিরাগত ক্যাডারদের নিয়ে ক্যাম্পাসে ঢুকে আমাদের নেতাকর্মীদের হুমকি-ধামকি দিচ্ছিলো। তাই আমরা তাদের প্রতিরোধ করেছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর নাসিমুজ্জামান বলেন, সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে এই পরিস্থিতির সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT