রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ১৯ জুন ২০২১, ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১২:২৫ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ মানিকগঞ্জ রুবেল হত্যাকারীদের ফাঁসীর দাবীতে মানববন্ধন। ◈ ঠাকুরগাঁওয়ে গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন ◈ বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী হৃদয় হাসান ◈ নারায়ণগ‌ঞ্জে বি‌ভিন্ন অনুষ্ঠা‌নে মোবাইল কো‌র্টের হানা ◈ কালিহাতীতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ১২ জনকে জরিমানা ◈ কালিয়ায় ভুমি দস্যুর সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে হুমকি! থানায় জিডি ◈ পত্নীতলার আইসোলেশনে ভারত থেকে আসা তিন হিজড়া সহ ১০ জন ভর্তি ◈ ঘাটাইল ভারতীয় ভেরিয়েন্টের উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন ইউপি চেয়ারম্যান ◈ ফুলবাড়ীতে রাইস কুকারে ভাত রান্না করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রান গেল গৃহবধূর ◈ বুড়িচংয়ের সংস্কারবিহীন সেতু: জনগণের দুর্ভোগ চরমে

তালোড়ায় বালু দস্যুরা বেপরোয়া, হুমকিতে রেলব্রীজ, সড়কব্রীজ, স্লুইচগেটসহ নদীর বাঁধ

প্রকাশিত : ০২:০৬ PM, ৭ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ৩৭২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

নিজস্ব প্রতিনিধি: বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার তালোড়ায় বালু দস্যুরা বেপরোয়া। আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে দিনরাত ভুগর্ভস্থ বালু উত্তোলন করে চলেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ এতে হুমকির মুখে পড়েছে নাগর নদের ওপর নির্মিত রেলব্রীজ, সড়ক ব্রীজ, ¯ুøইচগেইট, নদীর বাঁধ ও ফসলী জমি।

ঐতিহ্যবাহী তালোড়া বন্দরের রেলগেট হতে পূর্ব পাশ দিয়ে এঁকে বেঁকে বয়ে যাওয়া নাগর নদের বাঁধ সংলগ্ন রেলওয়ে ও সরকারী জমিকেই বালূ দস্যুরা বালু উত্তোলনের নিরাপদ পয়েন্ট হিসেবে বেছে নিয়েছে।

আর এখানেই দীর্ঘদিন যাবত শ্যালো চালিত ড্রেজার বসিয়ে দিনরাত বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালী স্থানীয় বালু দস্যুরা। এতে হুমকির মুখে পড়েছে নাগর নদের ওপর নির্মিত রেলব্রীজ ও সড়ক ব্রীজ, স্লুইচগেইট, নদীর বাঁধ সহ আশপাশের গ্রামের শত শত বিঘা ফসলি জমি।

অপরদিকে মোটা অংকের রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। কিন্তু রহস্যজনক কারণে স্থানীয় প্রশাসনের নীরবতায় বন্ধ হচ্ছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। এদিকে বালু উত্তোলন বন্ধ না হলে এবারের বর্ষায় ব্যাপক ক্ষতির আশংকায় আতংকিত এলাকাবাসী।

সম্প্রতি সরেজমিন গেলে স্থানীয় বাসিন্দা ও বিভিন্ন স্তরের লোকজনের সাথে কথা বলে ওঠে আসে এমন তথ্য।

সরেজমিনে দেখা যায় নদীর বাঁধের উপর দিয়ে ঘন ঘন বালুর ট্রাক যাতায়াত করতে। স্থানীয় বালুদস্যুরা নদীর বাঁধ বেশিরভাগই কেটে ফেলে চালাচ্ছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মহোৎসব।

এখন সরু এ বাঁধের উপর দিয়ে ট্রাক যাতায়াতের ফলে বাঁধ ভেঙে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। বর্ষা মৌসুমে যে কোন সময় বড় দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। বাঁধ সংলগ্ন জমিগুলোয় বিশাল এলাকা জুড়ে ভেকু মেশিন দিয়ে গভীর গর্ত করে আগে মাটি বিক্রি করা হয়েছে এরপর বিভিন্ন স্থানে ড্রেজার বসিয়ে দিনরাত তোলা হচ্ছে বালু।

পাশের ধানক্ষেত সহ ফসলী জমি অনেকটাই ভেঙে গেছে, কৃষকের আলুর ক্ষেত ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে।

দুরে থেকে বোঝায় উপায় নেই এখানে এত বড় আকারে অবৈধ কর্মযজ্ঞ চলছে।

পাশের সাবলা গ্রামের এক ভুক্তভোগী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বালু তোলার ফলে আমার জমি গর্তের সৃষ্টি হয়ে ডেবে গেছে তাই বাধ্য হয়ে তাদের কাছে কম দামে দিয়ে দিয়েছি। এ রকম আরো অনেকেই বিপদে পরে বাধ্য হয়ে জমি দিয়েছে।

তিনি আরো বলেন এই পয়েন্ট থেকে প্রতিদিন ১শর উপরে বালু ভর্তি ট্রাক যায়। বালু দস্যুরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা প্রতিবাদ করতে পারি না।

এলাকাবাসী জানান, সাবলা গ্রামের ছায়েত আলী প্রামানিকের ছেলে আমিনুর রহমান আমিন, দুুলাল প্রামানিকের ছেলে রতন প্রামানিক ও একই গ্রামের হযরতের ছেলে তালোড়া পৌর কাউন্সিলর এমরান আলী রিপু এই পয়েন্টগুলোর মালিক। বালু ব্যবসা করেই তারা আজ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ, লাখ লাখ টাকার মালিক। করছে বিলাসী জীবন যাপন।

জানা যায়, কয়েক মাস আগে ভ্রাম্যমান আদালত এই পয়েন্টে অভিযান পরিচালনা করে আমিনকে ১ মাসের কারাদন্ড দেয়। জেল থেকে বেরুবার আগেই তার নিদের্শে পুনরায় একই স্থানে বালু উত্তোলন শুরু করে তার শ্রমিকরা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, বালু দস্যুদের পরিচয় প্রকাশ করে বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও সুফল পাচ্ছেন না ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এমনটাই প্রত্যাশা করছেন এলাকাবাসী ও সচেতন মানুষরা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT