রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ

ঢাকার ম্যানহোল মরণ ফাঁদ

প্রকাশিত : ০৯:২৬ AM, ১ অক্টোবর ২০১৯ মঙ্গলবার ২৭৬ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

ঢাকার সড়কে যানবাহন চলাচলে ম্যানহোল মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। রাস্তার মাঝখানের ম্যানহোলের ঢাকনা নিয়ে ঢাকা দুই সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা ওয়াসার উদাসীনতায় প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন যানবাহন চালকরা। যেগুলোর ঢাকনা আছে কোথাও খোলা, কোথাও উঁচু-নিচু থাকছে দিনের পর দিন।

জানা গেছে, ঢাকায় ম্যানহোলের সংখ্যা প্রায় ৯৮ হাজার। এরমধ্যে ওয়াসার আট হাজার, উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ম্যানহোল প্রায় ৫০ হাজার। আর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৪০ হাজার ম্যানহোল রয়েছে। যার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ ব্যস্ততম সড়কজুড়ে।

সরেজমিন দেখা গেছে, রাজধানীর মালিবাগ ব্রিজ থেকে বাড্ডা লিংক রোড পর্যন্ত সড়কে ম্যানহোল উঁচু-নিচ অবস্থায় রয়েছে। ব্যস্ততম এ সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করে। ধানমন্ডি থেকে মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড, সাতমসজিদ রোড, শিয়া মসজিদ, তাজমহল রোড, মোহাম্মদী হাউজিং সোসাইটি এলাকায় ঢাকনাযুক্ত অনেক ম্যানহোল রয়েছে, যেগুলো সড়কের সমতলের নয়।

এছাড়া পান্থপথ ট্রাফিক সিগন্যাল থেকে স্কয়ার হাসপাতাল পর্যন্ত সড়কেও রয়েছে অন্তত তিনটি দুর্ঘটনাপ্রবণ ম্যানহোল। এফডিসি মোড়, কারওয়ান বাজার এলাকায়ও রয়েছে দুর্ঘটনাপ্রবণ ম্যানহোল। ঢাকার প্রতিটি সড়কেরই একই চিত্র।

ম্যানহোল ব্যবস্থাপনা বিষয়ে নগরবিদ মোবাশ্বের হোসেন বলেন, ম্যানহোলে লোহার ঢাকনা চুরি হয়ে যাওয়ায় সিমেন্টের ঢাকনা বসানোর বিষয়ে সিটি কর্পোরেশন কাজ শুরু করেছিল। কিন্তু কিছুদিন পরে সে উদ্যোগ বন্ধ হয়ে যায়।

আর নিম্নমানের নির্মাণসামগ্রী দিয়ে ঢাকনা তৈরি করায় রাস্তায় গাড়ির চাপে ভেঙে পড়ে। এজন্য মানসম্মতভাবে রাস্তার সমানে সিমেন্টের ঢাকনা স্থাপন করলে ম্যানহোলের দুর্ঘটনা থেকে সুরক্ষিত থাকবে নগরবাসী। এসব ব্যাপারে সেবা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে কাজের পরিকল্পনা নিয়েছে সিটি কর্পোরেশন।

বছর বছর উন্নয়নে সড়কগুলো ম্যানহোলের ঢাকনা থেকে অন্তত দুই-তিন ফুট উঁচু হয়ে গেছে। ফলে ঢাকনার ওপরের অংশগুলো বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। সড়কে চলাচলের সময় অসতর্ক অবস্থায় এসব গর্তে পড়ে যানবাহনগুলো প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার মুখে পড়ছে।

বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ লোকাল বাসের চালক নিজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, রাস্তার মাঝে ম্যানহোল বিপজ্জনক। উঁচু-নিচু হওয়ায় অনেকেই ম্যানহোলে পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন। এটা খুবই বিপজ্জনক। কোনো ম্যানহোল নির্মাণ করার সময় সিটি কর্পোরেশন বা ওয়াসার উচিত সমতল অনুযায়ী ম্যানহোল নির্মাণ করা। তবে সবচেয়ে বিপদজনক হয় যখন বৃষ্টিতে সড়কের ওপর পানি উঠে এবং ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা থাকে। সতর্ক থাকা সত্ত্বেও বিপদে পড়তে হয়।

কয়েক দিন আগে রাজধানীর শিয়া মসজিদ এলাকায় ম্যানহোলের গর্তে চাকা আটকে দুর্ঘটনায় পড়েন সিএনজিচালিত অটোরিকশার এক চালক। চলতি পথে অটোরিকশা হঠাৎ আটকে যাওয়ায় তিনি কোমরে আঘাত পান। পরে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এসব দুর্ঘটনার বিষয়ে অটোরিকশাচালক আজিজুর রহমান বলেন, যেসব এলাকার রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলে, সেগুলোর ম্যানহোলের অবস্থা যদি এ রকম হয়, তাহলে তা চিন্তার বিষয়। ম্যানহোলগুলো অনিরাপদ থাকলে দুর্ঘটনা তো ঘটবেই।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খান জানান, ম্যানহোলের মালিকানা সিটি কর্পোরেশন ও ওয়াসার। ম্যানহোলের অব্যবস্থাপনার সঙ্গে সড়ক খুঁড়ে নালায় পরিণত করার কাজটি তারা বেশি করে থাকে। তবে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনও ম্যানহোল ও সড়ক ব্যবস্থাপনায় চরমভাবে উদাসীন। এতে নগরবাসীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

ঢাকা দুই সিটি কর্পোরেশনের প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তারা বলেন, ঢাকায় ম্যানহোলের ঢাকনা সমস্যা দূর করতে বেশকিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী বছরের মধ্যে ম্যানহোলের ঢাকনা নিয়ে নগরবাসীর বিড়ম্বনা থাকবে না।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২৬ জানুয়ারি শিশু জিহাদ এবং একই বছরের ৮ ডিসেম্বর নীরবের মৃত্যুর পর হাইকোর্ট ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা না রাখার বিষয়ে সেবা সংস্থাগুলোর প্রতি সতর্কতামূলক নির্দেশনা দেন। এরপরও কর্তৃপক্ষের টনক নড়ছে না।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT