রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ১৬ জুন ২০২১, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ বিলাইভ মিউজিক স্টেশন থেকে আগামী রবিবার আসছে রাহিব খানের ❝তুই আশিকি❞ ◈ আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন সংগঠক মোস্তফা কামাল মাহদী ◈ বিএসআরএফ দপ্তর সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় মোসকায়েত মাশরেককে শুভেচ্ছা ◈ ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষন মামলা আসামীকে পুলিশের সহযোগীতার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন ◈ ঘাটাইল লক্ষিন্দর ইউনিয়নে টাকা ছাড়া হয় না ভাতা কার্ড ◈ রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের উদ্যোগে বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন ◈ জাগ্রত আছিম গ্রন্থাগারের উদ্যোগে স্থানীয় মাদ্রাসায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন ◈ কালিহাতীতে বাড়ছে করোনা, সামাজিক সচেতনতায় ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ অব্যাহত ◈ মুক্তাগাছায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৭ জনের জেল ◈ রায়পুরায় ট্রেনের সাথে প্রাইভেটকারের ধাক্কা, ঘটনার ৬ দিনপর এক পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু

চার মাসেও সংস্কার হয়নি ভাঙা সেতু

প্রকাশিত : ০৫:২২ AM, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার ৩২৭ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া ও রাজনগর উপজেলার মধ্যে চলাচলকারী বাইপাস বরমচাল-মুন্সিবাজার নতুন পাকা সড়কের একটি ব্রিজ ভেঙে প্রায় চার মাস ধরে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন ওই দুই উপজেলার প্রায় লক্ষাধিক মানুষ।

ব্রিজ ভাঙা থাকায় স্থানীয়রা নিজেরা চাঁদা তুলে একটি সাঁকো তৈরী করে শুধু লোকজন যাতায়াতের ব্যবস্থা করলেও অনেকে ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার হচ্ছেন। এই সড়কের আরও দুইটি ব্রিজের অবস্থাও জরাজীর্ণ বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জানা যায়, কুলাউড়া ও রাজনগর উপজেলা এলজিইডি’র অধীনে মোট প্রায় ৮.৮৫ কিলোমিটার সড়ক পাকাকরণ হয়েছে। কুলাউড়া উপজেলা অংশে প্রায় ৫.৮৫ কি.মি. এবং রাজনগর উপজেলা অংশে প্রায় ৩ কি.মি. সড়ক পাকাকরণ করা হয়েছে। কুলাউড়া অংশে এই কাজে ব্যয় হয়েছে ৫ কোটি টাকা এবং রাজনগর অংশে ব্যয় হয়েছে এক কোটি ৫৯ লাখ টাকা মোট ৬ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।

এদিকে কাজ শুরুর আগে এই সড়কটি ছিলো কাচা। ব্রিজগুলো ছিলো অনেক পুরনো। তবে রাস্তার অবস্থা ভালো না থাকায় আগে ভারী যানবাহন চলাচল কিংবা অতিরিক্ত যান চলাচল ছিলো না। তাই ওই ব্রিজ দিয়ে অনায়াসে মানুষ যাতায়াত করতে পারতো। কিন্তু সড়কটি পাকাকরণ হওয়ায় কম সময়ে যাতায়াতের জন্য ভারী যানসহ বিভিন্ন শ্রেণির যান এই সড়কটি ব্যবহার করছে।

এতে ওই পুরনো ব্রিজগুলোতে অতিরিক্ত চাপ পড়ায় ধসে পড়েছে। স্থানীয় খাসিয়া পুঞ্জির বাসিন্দা মজনু সুয়ের বলেন, অনেকদিন ধরে ব্রিজটির অবস্থা জরাজীর্ণ ছিলো। চার মাস আগে পুরোপুরি ধসে পড়েছে। ফলে রোগী, শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের অনেক কষ্ট হচ্ছে। বিপদকালীন সময় চলাচলের জন্য স্থানীয়রা সকলে মিলে ওই বিকল্প সাঁকো নির্মাণ করেছি।

বরমচাল ইউপি সদস্য চন্দন কুর্মি বলেন, এই ব্রিজটি বন্ধ হওয়ায় আমরা অনেক সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি। সরকারের কোটি টাকার উন্নয়ন মানুষের চোখে পড়ছে না এই ভাঙা ব্রিজের কারণে। কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি, বরমচাল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আহবাব চৌধুরী শাজাহান বলেন, অল্প সময়ে মৌলভীবাজার ও সিলেটে যাতায়াতের জন্য বরমচাল, ভুকশীমইল ও ভাটেরার মানুষের সুবিধার্তে এই সড়কের প্রস্তাবনার মাধ্যমে বাস্তবায়ন হয়েছে। এখানকার স্থানীয়রা ছাড়াও চা বাগানের শ্রমিকরা অনেক উপকার ভোগ করবে। তবে একটি ব্রিজের জন্য সাময়িক ভোগান্তি হচ্ছে, দ্রুত তা পুনঃনির্মাণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

কুলাউড়া এলজিইডি প্রকৌশলী ও রাজনগর উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলী মু. ইসতিয়াক হাসান বলেন, ইতিমধ্যে ওই ব্রিজটির মাটি টেস্টের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ব্রিজসহ রাজনগর অংশের আরও দুইটি জরাজীর্ণ ব্রিজ পুনঃনির্মাণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অনুমোদন আসলেই ট্রেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে দ্রুত কাজ শুরু হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT