রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ০২ জুলাই ২০২০, ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০২:৪৭ অপরাহ্ণ

শিরোনাম

‘চল্লিশ মিনিটের নাটক দশদিনে শুট করা উচিত’

প্রকাশিত : ০৭:৩৭ PM, ৯ জানুয়ারী ২০২০ Thursday ৯০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

নাটক ও বিজ্ঞাপনে হাজির হয়ে দক্ষতার জানান দিয়েছেন সময়ের সম্ভাবনাময় ও মেধাবী অভিনেতা মনোজ প্রামাণিক। বেশ কিছু নাটকে হয়েছেন আলোচিত ও প্রশংসিত। নাটকের বাইরে কাজ করেছেন সিনেমাতেও। চলতি বছরে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তার বেশ কিছু সিনেমা। সম্প্রতি এক আলাপচারিতায় তার ব্যস্ততা ও কাজ কথা বলেছেন ইমরুল নূর।

সাম্প্রতিক ব্যস্ততা নিয়ে মনোজ জানান, গেল বছরের শেষ দিকে আমার অভিনীত ‘ইতি, তোমারই ঢাকা’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। এটি থেকে বেশ ভালো সাড়াও পেয়েছি। নাটকে কাজের ব্যস্ততাটা একটু বেশি। একক নাটকই বেশি করা হয়। প্রতি মাসেই কয়েকটা করে করা হচ্ছে। আর নাটকের পাশাপাশি সিনেমাতেও মোটামুটি ব্যস্ততা রয়েছে। এই বছর একটি সিনেমাতেই কাজ করছি, সেটা হচ্ছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’। এটা ছাড়াও আরও কিছু ছবির বিষয়ে কথাবার্তা চলছে। এখনো চূড়ান্ত কিছু হয় নি। আর এই বছরে ঈদে মুক্তি পাবে আমার অভিনীত ‘মিশন এক্সট্রিম’ ছবিটি।

সম্প্রতি অংশ নিয়েছিলেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমায়। প্রথম লটের শুটিং করে ঢাকায় ফিরে আবারও নাটকে অভিনয় করছেন মনোজ। ছবিটি নিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ছবিটিতে কাজের অভিজ্ঞতা খুবই ভালো। কারণ এই ছবির যে টিমটি রয়েছেন সেটি অনেক গোছানো। এছাড়া টেকনিক্যাল যে টিমটি রয়েছেন তারা খুবই প্রি-প্লানড। আর সুন্দরবনে শীতের মধ্যে কাজ করেছি। সেখানে বাঘ, সাপ এগুলোর ভয় তো আছেই। সবকিছু উপেক্ষা করে কাজটি করেছি। এরমধ্যে আবার সেখানে জোয়ার-ভাটাও হয়েছে। সবকিছুর মধ্যে দিয়েই আসলে আমাদের কাজ করতে হয়েছে। সত্যি বলতে পুরো শুটিংটা আমি খুব উপভোগ করেছি। এখানে আরও যারা কাজ করেছেন তাদের প্রতিটা চরিত্রই চ্যালেঞ্জিং। সবাই যেভাবে হার্ড ওয়ার্ক করে কাজ করছে সেটা দেখে আমি অনেকটা মনোবল পেয়েছি। আমার চরিত্রটাও ছিল ঠিক এরকমই। এখানে আমি একজন জেলের ছেলে চরিত্রে অভিনয় করছি, যারা সুন্দরবনের মধ্য দিয়ে নদীতে মাছ ধরে।

নাটক এবং সিনেমা এই দুই ক্ষেত্রে কাজের পার্থক্য কেমন অনুভব করেন? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সিনেমা হচ্ছে একটা বড় ক্যানভাস। নাটকে সময়টা কম থাকে যেমন চল্লিশ মিনিট। আইডিয়ালি নাটকের এই চল্লিশ মিনিট আমাদের দশদিনে শুট করা উচিত ছিল, প্রতিদিন চার মিনিটের দৃশ্য ধারণ করে। কিন্তু সেটার পরিবর্তে দুইদিনে আমাদেরকে শেষ করতে হয়, কারণ বাজেট কম থাকে। এছাড়াও সময় কম থাকার কারণে নাট্যকার, পরিচালক কিংবা শিল্পীদের যতটুক প্রস্তুতি নেওয়া দরকার সেটা ঠিকমত নিতে পারে না। এই তাড়াহুড়োটা থাকেই, তারপরও আমরা চেষ্টা করি যতটা ভালো করা যায়। আর সিনেমাতে এই পরিসরটা থাকে। যেহেতু বড় পর্দায়, সেখানে সবকিছু ডিটেলে দেখা যায়। সবকিছু চোখে পড়ে আরও বেশি। সেকারণে প্রস্তুতি ছাড়া কাজ করার আসলে কোন কারণ থাকে না। আলাদা একটা প্রস্তুতি নিতেই হয়।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তার অভিনীত ও নুরুল আলম আতিক পরিচালিত ‘মানুষের বাগান’ ছবিটি। এছাড়াও মুক্তির মিছিলে রয়েছে মিশন এক্সট্রিম, অপারেশন সুন্দরবন ছবিগুলো। প্রতিটা ছবি নিয়েই অনেক আশাবাদী এই অভিনেতা।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT