রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৮:৪১ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ হাতিয়ায় ভাইয়ের হাতে ছোট বোনের মৃত্যু ◈ বেগমগঞ্জে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা’র ৯০ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সেলাই মেশিন বিতরণঃ ◈ দুঃস্থ ও অসহায় মহিলাদের মাঝে বান্দরবানে সেলাই মেশিন বিতরণ ◈ লামায় দুইবছর পার হলেও কেনা হয়নি ‘ডিজিটাল হাজিরা ◈ লামায় রাস্তা দেখিয়ে দিতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু ◈ তাহিরপুরে বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছার ৯০তম জন্ম দিনে সেলাই মেশিন প্রদান ◈ রাজনগরে শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান-কোটি টাকার ব্যয় গ্রহন করলেন জিল্লুর রহমান ◈ দেশের জন্য বঙ্গমাতার ত্যাগ ও অবদান ছিল অবিস্মরণীয় -এমপি শাওন ◈ ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭ ◈ চাঁদপুর প্রেস ক্লাব সভাপতি ইকরাম চৌধুরী মারা গেছেন

চট্টগ্রাম চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবনে বিশুদ্ধ খাবার পানি!

প্রকাশিত : ০৫:৪০ PM, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ Wednesday ২৭০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

মো.সুমন,হাটহাজারী প্রতিনিধি:

চট্টগ্রাম চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভবন ১ কোর্ট হাজিরায় গিয়েছিলাম প্রচুর মানুষের ভিড়ে হঠাৎ পানির পিপাসায় গলাটা শুকিয়ে যাই আমার। পানির সন্ধানে দুই তলা থেকে নিচ তলায় সিঁড়ি দিয়ে নামের পথে হাতের বাম পাশে আলাদা একটি কক্ষে লিখা দেখতে পাই বিশুদ্ধ খাবার পানি।

আজ মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) সকাল ১১ ঘটিকায় চট্টগ্রাম চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন ১ কোর্ট হাজিরায় দিতে গিয়ে এমন দৃশ্যটি চোঁখে পড়ে। হঠাৎ পানির পিপাসায় গলাটা শুকিয়ে যাওয়ার কারনে দুই তলা থেকে সিঁড়ি দিয়ে নিচ তলায় নামার পথে হাতের বাম পাশে বিশুদ্ধ খাবার পানি লিখাটা দেখতে পেয়ে খুব খুশি মনে গিয়েছিলাম পানি পান করতে। কিন্তু পানি পান করতে গিয়ে হতভম্ব হয়ে পড়ি একি অবস্থা যদি বিশুদ্ধ পানির অবস্থা এমন হয় তাহলে অবিশুদ্ধ পানির অবস্থা কেমন হতে পারে তা নিয়ে মনে মনে প্রশ্ন জাগলেও একটু নিরাবতা পালন করি ঐ জায়গায়।

চট্টগ্রমা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন ১ এই কোর্টে প্রতিদিন প্রায় হাজার হাজার মানুষ যায় যার যার ব্যক্তিগত কাজে। আমিও গিয়েছিলাম ওদের মত কোন এক কাজে। কিন্তু কাজের ভিতর এমন বিশুদ্ধ পানির অবস্থা দেখে নিজের কাছে খারাপ লাগলেও চুপ করে চলে আসার সময় দেখি অনেকে আমার মত পানির খুঁজে গিয়েছিল তাদের অবস্থা এমনি হয় মন খারাপ করে কিনে নিয়ে আসে খাবার পানি। আমার ছবি তুলা দেখে অনেকে বুঝতে পারে তাদের অনেকে অনেক অভিযোগ শুনে ও কিছু বলতে পারছি না একজন ছোট সাংবাদিক হিসাবে আমার পক্ষে কিছু করার নাই তবুও একটা জায়গায় বিবেক নাড়া দেয় আমি তো একজন গণমাধ্যমকর্মী হিসেবে কিছু করতে না পারলেও অন্তত দুই লাইন লিখার চেষ্টা তো করতে পারি।

কোর্ট একটি আইনি ভবন সবার কাছে এটা জানা আছে তাই আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে কোর্টে এ বিভিন্ন কাজে মানুষ যাই। কেউ ঐ খানে একটু সুখের আশায় বা টাকার আশায় যাইনা অপরাধীরা অপরাধ স্বীকার করে ভালো মানুষ হিসাবে সত্য বলে ভাল মানুষ হওয়ার জন্য কোর্টে যাই। কোর্ট একটি পবিত্র স্থান ওঠার প্রতি সবার সম্মান থাকা উচিৎ। কিন্তু সত্য বলার একটি পবিত্র স্থানে এমন মিথ্যা লিখাটি লেখার কারন সাধারন জনগনের অভিযোগ অনেক বিশুদ্ধ খাবার পানি লিখা দেখে অনেকে পানি পান করতে গিয়ে দেখে পানির কল নাই একটা আবার যেই কল’টা আছে ওঠা দিয়ে পানি পরে না। তারপর নিচের দিকে তাকালে মনে হয় একটি ডাস্টবিন যার সমস্ত জায়গা জুড়ে রইয়েছে পানের পিক সিগারেট ময়লা আর্বজনা থু থু ইত্যাদি বলতে গেলে একেবারে অপরিস্কার একটি স্থান যেখানে কোন মানুষের পক্ষে পানি থাকলেও পান করা সম্ভব না। এমনি একটি সত্য বলার পবিত্র জায়গায় এতো বড় মিথ্যা লেখা লিখে রাখার কারনে প্রতিনিয়ত হাজার ও মানুষ হতাশ হয়ে বিশুদ্ধ পানির অবস্থা দেখে পিরে যাই অবিশুদ্ধ পানির খোঁজে। শুধু তাই নয় বিশুদ্ধ খাবার পানির সাথে রইয়েছে সুন্দর একটি টয়লেট যেখানে লেখা আছে পশ্রাব ৫ টাকা টয়লেট করলে ১০ টাকা আমি নিজেও পশ্রাব করে ৫ টাকা দিয়ে বললাম এটা কেন ওদের নাকি কোর্ট থেকে টাকা দেয় না কি আজব একটি জায়গা সরকারি কোর্ট সরকারি টয়লেট সাধারন জনগনের সেবার জন্য দিয়েছে অতচ সেইখানেও অন্যরা দখল দাড়ি করে কোর্টের অপর দোষ চাপাচ্ছে।

সরজমিনে দেখলাম চট্টগ্রাম কোর্টে কিছু কিছু জায়গায় দেওয়ালে লেখা দেখা আছে কোর্টে সেবা পাওয়া আপনার অধিকার। যদি কোন প্রকার অভিযোগ থাকে একটি নাম্বার ও দেওয়া আছে ওখানে অভিযোগটি জানানোর জন্য। জানি না কেউ অভিযোগ জানিয়েছে কিনা তবে আমার ছবি তোলা দেখে সাধারন জনগনের অনেক অভিযোগ শুনে ছোট একজন সাধারন মানুষ হিসাবে কিছু লিখলাম। পবিত্র এমন একটি স্থানে সত্য বলার জায়গায় মিথ্যা লেখা দেখিয়ে মানুষ কে বিভ্রান্তি করা হচ্ছে বিশুদ্ধ পানির স্থানে অন্য পরিবেশ দেখে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে সাধারন জনগন কে। পাশা পাশি টয়লেটের জন্য কিছু অসাধু মানুষ যে চাঁদা দাবি করে নেওয়া হচ্ছে এটা মোটেও সেবামূলখ কাজ নয়। তাই চট্টগ্রাম চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন ১ এর প্রতি সাধারন জনগনের ক্ষুদ্র আবেদন আপনার কাছে পানির স্থানে যেন পরিস্কার করে পানির লাইন দেওয়া হয় এবং টয়লেটের জন্য যে চাঁদা দিতে হয় তা যেন বন্ধ করে সাধারন জনগনের কিছুটা উপকার করে ভোগান্তি’টা কমানো হয়।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT