রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৫:৫৫ অপরাহ্ণ

শিরোনাম

গাছতলা ব্রীজে কিশোর গ্যাংয়ের উপদ্রব দিন দিন বেড়েই চলছে

প্রকাশিত : ০৫:১৪ AM, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বুধবার ২৩৯ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

গাছতলা ব্রিজটি চালু হয় ২০০৫ সালে। চালু হওয়ার পর থেকেই আশপাশের প্রাকৃতিক পরিবেশ সৌন্দর্যমন্ডিত হওয়ায় মানুষজন ঘুরতে আসেন এই ব্রীজটিতে। বিশেষ করে এ মৌসুমে কাশফুলের সৌন্দর্যে যে কোন মানুষকেই মোহিত করে এই স্থানে। বিশেষ করে গাছতলা ব্রীজের উত্তর পাশের দু’ ধারের সৌন্দর্য প্রভাবিত করে পর্যটকদের। আর এ সুযোগটাই দীর্ঘদিন ধরে কাজে লাগাচ্ছেন কিশোর গ্যাংয়ের একটি গ্রুপ। তাদেরকে বাইরে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী মহল।

এমনই একটি ঘটনা ঘটে গতকাল সোমবার ২৪ সেপ্টেম্বর দুপুর ১টায়। তানিম, রায়হান, ফিরোজ। রূপসা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র। তানিম অনলাইনে একটি ক্যামেরার অর্ডার দেন। ক্যামেরাটি নেয়ার জন্য গতকাল সোমবার এসএ পরিবহনে আসে এ ৩ বন্ধু। ক্যামেরা সংগ্রহ করে বাড়ি ফেরার পথে গাছতলা ব্রীজ সংলগ্ন কাশফুলের সৌন্দর্যে কিছুক্ষনের জন্য থামে ছবি তোলার জন্য। ওরা ক্যামেরাও ঠিক মতো চালাতে জানেনা। তবুও ছবি তোলার চেষ্টা করে কিছুক্ষণ। এরমধ্যেই ওৎপেতে থাকা পিয়াস, তারেক, ফরহাদসহ ৫/৭ জনের একটি গ্যাং বুঝে ফেলে তানিম, রায়হান ও ফিরোজকে শিকার বানানো সহজ। কিশোর গ্যাংটি তানিমদের কাছে এসে প্রথমে আন্তরিকভাবে কথা বলার চেষ্টা করে তাদেরকে লোকালয় থেকে নির্জনে নেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তানিমরা বুঝে ফেলে তাদের ভাগ্যে কি ঘটতে যাচ্ছে।

দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেও লাভ হলো না। পিয়াসসহ কিশোর গ্যাংটি তাদের ধরে বেদমভাবে মারধর করে তাদের কাছ থেকে ক্যামেরা এবং একটি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। মারাত্মক আহত হয়ে জীবন বাঁচানোর আশায় ট্রাকে বালু উত্তোলনকারী কয়েক যুবকের পা ধরেও বলেছে, ভাই আমাদের বাঁচান। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসে নি। অথচ দেখেচে প্রায় পাঁচ দশেক লোক। এরমধ্যে কিশোর গ্যাং গ্রুপের তারেক বলে উঠে ছুরিটা বের কর। এ কথা শুনে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। দৌড়ে কোন রকমে এসে রাস্তায় এসে দোকানীদের কাছে বলার চেষ্টা করে। এর মধ্যে এক কাউন্সিলর ও সাংবাদিক গুরুতর আহত রায়হান ও ফিরোজকে সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে বিষয়টি জানালে ঘটনাস্থলে এসে উপস্থিত হন এসআই হানিফ ও সঙ্গীয় ফোর্স।

তানিমের কাছ থেকে গ্যাংয়ের বর্ণনা শুনে জানা যায় একজনের ঘাড়ে কাটা দাগ আছে। এরপর এলাকাবাসীর কাছ থেকে খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, দক্ষিণ তরপুরচন্ডীর ফরহাদ, জাহাঙ্গীর কাজীর ছেলে পিয়াস, বেলায়েত হোসেন খলিফার ছেলে তারেকসহ ৫/৭ জনের একটি গ্রুপই এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং আহত তানিম ফেইসবুকে তাদের ছবি দেখে তাদেরকে শনাক্ত করে। এলাকার শান্তিপ্রিয় জনগনের দীর্ঘদিনের অভিযোগ এই কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক এক ব্যক্তি জানায়, এই গ্যাংটি এলাকার প্রভাবশালী মহলের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। এখানে কোন ব্যক্তি ঘুরতে আসলে সুযোগ পেলেই তাদেরকে আটক করে মারধর করে তাদের কাছে যা কিছু থাকে সবকিছু ছিনিয়ে নেয়। আবার যদি কখনো কোন মেয়ে আসে ঘুরতে দু’ একজনসহ। সুযোগ পেলেই জোরপূর্বক ধর্ষনের ঘটনাও ঘটায় এরা। বিগত কয়েক মাসে এ এলাকায় অন্তত ৬০/৭০টি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। যার অধিকাংশই পিয়াস গ্রুপের দ্বারা সংঘটিত। ধর্ষণের ঘটনাও ঘটেছে বেশ কয়েকটি। শুধুমাত্র সম্মানহানীর ভয়ে মুখ খুলেন নিয়ে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীরা।

আরো বেশ কয়েকজন জানায়, এদের নিয়ে পর পর কয়েক দফা দরবার শালিশ হলেও এলাকা থেকে এদের কিছুতেই দমন করা যাচ্ছে না। প্রশাসনও তেমন ভাবে নজর দিচ্ছে না। দেশব্যাপী কিশোর গ্যাং দমনে প্রশাসন সচেষ্ট হলেও গাছতলা ব্রীজ সংলগ্ন কিশোর গ্যাং দমনে প্রশাসনের তেমন কোন তৎপরতা নেই। কিন্তু কেন? এমন প্রশ্নই জনমনে বিরাজ করছে।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এদের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যাচ্ছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT