রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১২:০১ অপরাহ্ণ

জেলার রাজনীতি ঠাকুরগাঁও

ক্রমেই সক্রিয় হচ্ছে বিএনপি আওয়ামী লীগও সরগরম

প্রকাশিত : ০৬:৩৯ AM, ৪ অক্টোবর ২০১৯ Friday ১৭৯ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের নির্বাচনি এলাকা হওয়ায় বিএনপির শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ঠাকুরগাঁও জেলা। বিগত দুই মেয়াদে নির্বাচনের পর দলটির রাজনৈতিক কর্মকান্ড অফিসকেন্দ্রিক কর্মসূচিতেই সীমাবদ্ধ থাকলেও ক্রমেই রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছে দলটি। গত কয়েক মাসে কেন্দ্র ঘোষিত বিভিন্ন কর্মসূচিতে মূল দলসহ অঙ্গ সংগঠনসমূহও রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করছে। এতে করে বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে চাঞ্চল্যভাব ফিরে এসেছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা তৈমুর রহমান জানান, মহাসচিবের নির্দেশে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে দল পুনর্গঠন ও অঙ্গ সংগঠনসমূহের কাউন্সিল সম্পন্ন করার প্রক্রিয়া চলছে। ইতোমধ্যে ২৫ অক্টোবর জেলা কৃষক দলের সম্মেলনের তারিখ ঘোষিত হয়েছে। নেত্রীকে রাজনৈতিক কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মুক্ত করার চলমান আন্দোলন আরও বেগবান করা হবে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা, ভাঙচুর ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার হত্যাসহ শতাধিক মামলায় প্রায় চার হাজার নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা দায়ের করে জেলা পুলিশ। সে সময় মামলার জন্য অনেক নেতাকর্মী দীর্ঘদিন জেল খেটেছেন। বর্তমানে নেতাকর্মীরা মামলার হাজিরা দিচ্ছেন নিয়মিতই। এ ছাড়া পুলিশি হামলা, গ্রেফতার, মামলার ভয় ও হয়রানির ভয়ে অনেক নেতাকর্মী স্বাভাবিক রাজনীতিতে ফিরতে পারছেন না বলে মনে করছেন দলের অনেক সিনিয়র নেতা।

দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত জেলার একমাত্র বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য জাহেদুর রহমানও ইতোমধ্যে তার নির্বাচনি এলাকায় কেন্দ্র ঘোষিত রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করছেন। তিনি এসব কর্মসূচির মাধ্যমে গণজাগরণ সৃষ্টির মাধ্যমে দলীয় নেত্রীকে মুক্ত করা সম্ভব হবে জানান। অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মকান্ড তৃণমূলে খুব বেশি চোখে না পড়লেও দলীয় অফিসগুলো সবসময় সরগরম থাকে।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন দাবি করে বলেন, বিগত সময়ে এলাকার উন্নয়ন চোখে না পড়লেও বর্তমান সরকারের সময়ে এলাকায় উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। একের পর এক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এলাকায় কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ রাস্তাঘাট উন্নয়ন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নির্মাণ ও আয় বৃদ্ধিমূলক ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

এক সময় বাম রাজনৈতিক সংগঠনগুলো সক্রিয় থাকলেও সময়ের পরিক্রমায় অফিসকেন্দ্রিক কর্মসূচিতেই সীমাবদ্ধ থাকছেন তারা। এ ছাড়া বিগত নির্বাচনের পর থেকে এবং দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর জেলা জাতীয় পার্টির অফিসে মিলাদ মাহফিল ছাড়া দলীয় অন্য কোনো কর্মসূচি দেখা যায়নি দলটির নেতাকর্মীদের।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT