রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৫:৪৩ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ সরকার বাজার শ্রমিক ইউনিয়ন গ্রুপ পরিচালনা কমিটির সভাপতি সুলতান ও সম্পাদক সেলিম ◈ শেরপুর প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের সাথে ইংল্যান্ডের কাউন্সিলর মর্তুজার মতবিনিময় ◈ রাজশাহীর দূর্গাপুর থানার ওসি খুরশিদা বানুর তৎপরতায় আইন-শৃঙ্খলার উন্নতি ◈ নতুন দায়িত্বে নূরে আলম মামুন ◈ ভাষা সৈনিকের নাতি শুভ্র’র খুনীরা যতই শক্তিশালী হোক তারা রেহাই পাবে না…..গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ ◈ ২ টাকার খাবারের কার্যক্রম এবার ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় ◈ রাজশাহীতে মানবাধিকার রক্ষাকারী নেটওয়ার্ক সভা ◈ রায়পু‌রে পুকু‌রে প‌ড়ে দুই শিশুর করুন মৃত‌্যু ◈ পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে কাতার প্রবাসীর সংবাদ সম্মেলন ◈ মহানবী (সাঃ)এর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে,মধ্যনগরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

ক্যাসিনো আনে ৯ প্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত : ০৫:৪৩ AM, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ Tuesday ২৬৬ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

বর্তমানে দেশব্যাপী বহুল আলোচিত ক্যাসিনো কারবার চালাতে যেসব সামগ্রী প্রয়োজন, সেগুলো আমদানির চক্রে জড়িত বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ও কিছু ব্যক্তি। খবর শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর সূত্রের।
সূত্রমতে, অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো মিথ্যা ঘোষণায় ক্রীড়াসামগ্রী আমদানির আড়ালে চীন ও হংকং থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম পোর্ট, কমলাপুরের আইসিডি ও বেনাপোলের সীমান্ত দিয়ে নিয়ে আসে ডিজিটাল গেমিং মেশিন ও বোর্ড, রোলিং বল, জুয়ায় ব্যবহৃত চিপস ও আগুন ধরে না এমন অত্যাধুুনিক প্লেয়িং কার্ডসহ প্রয়োজনীয় ক্যাসিনোসামগ্রী।
কখনো কাস্টমসের চোখ ফাঁকি দিয়ে, কখনো বা আমদানিসংশ্লিষ্ট কিছু কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে বাংলাদেশে ক্যাসিনোসামগ্রী নিয়ে আসে ৯টি প্রতিষ্ঠান। প্রাথমিক তদন্তে ৫টি প্রতিষ্ঠানের সরাসরি সংশ্লিষ্টতা

পেয়েছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। প্রতিষ্ঠানগুলো হলোÑ ইসলাম অ্যান্ড সন্স, নিনাদ ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, পুষ্পিতা এন্টারপ্রাইজ, এবি ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল ও একটি বেসরকারি পেপার মিল। এ ৫ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পুষ্পিতা এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার তাপস ও মালামাল খালাসকারী প্রতিষ্ঠান সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ও বেত্রাবতী ট্রেড সিন্ডিকেটের মালিক মো. আশরাফুল আলমকে তলব করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। গতকাল সোমবার বেত্রাবতী ট্রেড সিন্ডিকেটের মালিক অধিদপ্তরের সদর দপ্তরে হাজির হয়েছিলেন তলবের কারণে। আর ‘শারীরিক অসুস্থতা’ দেখিয়ে পুষ্পিতা এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন। চলতি ও আগামী সপ্তাহে পর্যায়ক্রমে অভিযুক্ত অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টদের তলব করা হবে বলে শুল্ক গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো. শহিদুল ইসলাম আমাদের সময়কে বলেন, মিথ্যা ঘোষণায় জুয়া খেলার মেশিনসহ বিভিন্ন ধরনের ক্যাসিনো সরঞ্জাম আমদানির সঙ্গে জড়িত কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে। এদের কয়েকজনকে তলব করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর মিথ্যা ঘোষণায় ক্যাসিনো সরঞ্জাম আমদানিকারকরা এখন পর্যন্ত কতগুলো সরঞ্জাম আমদানি করেছেন তা জানা যাবে। আমদানি নীতিবহির্ভূতভাবে এসব আমদানি করা হলে প্রত্যেকের বিরুদ্ধেই আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্র জানায়, মূলত ফান ফেয়ার গেম সামগ্রী আমদানির ঘোষণা দিয়ে গত ৫ বছরে নামে-বেনামে অথবা মিথ্যা ঘোষণায় ৯ প্রতিষ্ঠান ছাড়াও অসংখ্য প্রতিষ্ঠান ক্যাসিনো সরঞ্জাম বাংলাদেশে আমদানি করেছে বলে তথ্য মিলেছে। অচিরেই ফান ফেয়ার গেমের নামে অবৈধ ক্যাসিনোসামগ্রী আমদানিকারকদের বিরুদ্ধে গোয়েন্দারা অভিযানে নামবে।
সূত্রটি আরও জানায়, মোবাইল, খেলনা, জুতার সামগ্রী, ফার্নিচার এবং ফান ফেয়ার গেম সামগ্রী আমদানির ঘোষণা দিয়ে ২০১৬ সালের ১৭ জুলাই শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাস্টমসের চোখ ফাঁকি দিয়ে ৪৪ কেজি ক্যাসিনো চিপস আনে এএম ইসলাম অ্যান্ড সন্স। প্রতিষ্ঠানটির ঠিকানা উল্লেখ করা হয় দক্ষিণখানের ৪৬৬ আসকোনা মেডিক্যাল রোড। এ ক্যাসিনোর মাল খালাস করে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কাওসার কার্গো কমপ্লেক্স লিমিটেড। ২০১৮ সালের ২১ মে ৩৩০ কেজি ক্যাসিনো কয়েন বাংলাদেশে আনে নিনাদ ট্রেডার্স ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠান। এর ঠিকানা তেজগাঁওয়ের ৬৮ তেজতুরি বাজার। এ মাল খালাস করে এবি ট্রেডিং এজেন্সি। ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি কমলাপুরের আইসিডি থেকে ২২০ কেজি ওজনের ক্যাসিনো ওঅর-গেম টেবিল আনে ১৯ উত্তর কমলাপুরের পুষ্পিতা এন্টারপ্রাইজ। এ মাল খালাস করে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট বেত্রাবতী ট্রেড সিন্ডিকেট। খেলার কথা বলে ২০১৭ সালের ১৯ জুলাই শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে কয়েক কোটি টাকা মূল্যের একটি ক্যাসিনো পোকার টেবিল, পোকার গেম চিপস, রুলেট গেম টেবিল (এমডিএফ) আনে আরেকটি প্রতিষ্ঠান। ২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট বেনাপোল কাস্টম হাউস হয়ে কয়েক কোটি টাকা মূল্যের ক্যাসিনোর গোটা পোকার সেট ও রুলেট গেম সেট নিয়ে আসে মোহাম্মদপুরের আহম্মদিয়া হাউজিংয়ের এবি ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল নামে একটি প্রতিষ্ঠান। এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা ক্যাসিনোর এ সামগ্রী চীন থেকে আনার ঘোষণা দিলেও বিশাল এ চালান আসে ভারত থেকে। অবৈধ এ পণ্য খালাস করে প্রান্তিক প্লাস নামে একটি সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট। এ ছাড়া ক্যাসিনোর সামগ্রী আমদানিতে আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

সূত্রমতে, গতকাল পুষ্পিতা এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার তাপস শুল্ক গোয়েন্দার কর্মকর্তাদের জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি কমলাপুরের আইসিডি থেকে খালাস করা ক্যাসিনো ওঅর-গেম টেবিল তার অজ্ঞাতসারে আনা হয়েছে। খেলার সরঞ্জামের কথা বলে কমলাপুরের সোহাইলা এন্টারপ্রাইজের মালিক সোহেল ক্যাসিনোর এসব সরঞ্জাম আনে তার মাধ্যমে। সোহেলের নিজস্ব লাইসেন্স না থাকায় তাপসের মালামালের সঙ্গে এ পণ্য আনার অনুরোধ করেছিলেন তাপসকে। পরে এ মাল খালাস করে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট বেত্রাবতী ট্রেড সিন্ডিকেট।
জানা গেছে, ঢাকার কয়েকটি ক্লাবের ক্যাসিনো হল থেকে রুলেট ও স্লট মেশিন জব্দ করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। অবিশ্বাস্য কম মূল্য দেখিয়ে রুলেট ও স্লট মেশিনসহ ক্যাসিনো সরঞ্জাম আমদানি করা হলেও ক্লাব কর্তৃপক্ষ সেগুলো কোথা থেকে সংগ্রহ করেছেন তার তথ্য দিতে পারেনি। সংশ্লিষ্ট আমদানিকারক মেশিনগুলো কার কাছে কত দামে বিক্রি করেছেন তারও কোনো তথ্য মেলেনি। প্রতিটি রুলেট মেশিনের আমদানি মূল্য দেখানো হয়েছে মাত্র ২৩ ডলার। এছাড়া জুয়া খেলায় ব্যবহৃত প্লাস্টিকের চিপের আমদানিমূল্য দেখানো হয় প্রতি পিস মাত্র ১৬ ডলার করে। অথচ রাজধানীর ক্যাসিনোগুলোতে ব্যবহৃত রুলেট মেশিনের দাম ২০ থেকে ৫৫ লাখ টাকা পর্যন্ত। আর স্লট মেশিনগুলোর দাম ৩০ থেকে ৭০ লাখের মধ্যে। এ ছাড়া পোকার টেবিলের বেশিরভাগই স্থানীয়ভাবে তৈরি। কিছু কিছু উন্নত পোকার টেবিল ১২-১৫ লাখ টাকা করে চীন থেকে আমদানি করা হয়।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT