রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০, ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৬:২৪ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ নকল হ্যান্ড সেনিটাইজারসহ নিম্ন মানের মাস্ক বিক্রি বন্ধে ভোক্তা অধিকারের অভিযান ◈ মালয়েশিয়ায় মসজিদে নামাজের অনুমতি, বিদেশীদের জন্য নিষেধাজ্ঞা ◈ করোনা টেস্ট ফি বাতিল ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি ◈ রায়পুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ চালক নিহত ◈ মেধাবীদের আরো একবার সংবর্ধিত করলো গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয় এ্যালামনাই ◈ নাটোরের লালপুরে পদ্মা নদীতে মহিলার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার ◈ রাজশাহীতে সাংবাদিকের সঙ্গে পুলিশ কনস্টেবলের মারমুখী আচরণ ◈ ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন করোনায় আক্রান্ত সবার কাছে দোয়া কামনা ◈ ১৪ দিনের জন্য লকডাউন চবি ক্যাম্পাস ◈ গঙ্গাচড়ার তিস্তায় নৌকাডুবি অল্পের জন্য বেঁচে গেল কয়েকটি প্রাণ

কোম্পানীগঞ্জে কিস্তির টাকা পরিশোধে বিপাকে হতদরিদ্র মানুষ

প্রকাশিত : ১১:৫৭ PM, ২৫ মার্চ ২০২০ Wednesday ২৪ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি:

এনজিও ঋণের কিস্তি ছয় মাসের জন্য শিথিল করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ)। এর ফলে আগামী জুন পর্যন্ত ঋণগ্রহীতা কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হলে সেটিকে খেলাপি বা বিরূপমানে শ্রেণিকরণ করা যাবে না। গতকাল সংস্থাটি এ বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করলেও এনজিও কর্মীরা সেটি মানছেন না ।

বর্তমানে পুরো দুনিয়া এক কঠিন দুঃসময়ের মধ্য দিয়ে সময় পার করছে। বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক দিনদিন ছড়িয়ে পড়ছে। বর্তমান নাজুক পরিস্থিতিতে প্রতি সপ্তাহ কিংবা প্রতিমাসে কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে হবে এ নিয়ে চিন্তিত রয়েছে সল্প আয়ের মানুষেরা। করনো ভাইরাস পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে সিলেট জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মানুষের চলাচল আগের থেকে অনেক কমে এসেছে। যার ফলশ্রুতিতে সাধারণ মানুষের আয় নেমে এসেছে শূন্যের কোঠায়। এমনই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন, বেসরকারি এনজিও ও সমিতি থেকে নেয়া টাকার কিস্তি পরিশোধ নিয়ে বিপাকে পড়েছে ঋণ গ্রহীতারা।

কোম্পানীগঞ্জের বেশ কয়েকটি বেসরকারি এনজিও থেকে ঋণ নিয়েছে এদের মধ্যে কেউ ক্ষুদ্র চায়ের দোকানদার, কেউবা সিএনজি অটোরিক্সা চালক কিংবা দিনমজুর। যার ফলে এসব হতদরিদ্র মানুষের সময় মতো কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায়, পড়তে হচ্ছে প্রতিদিন নানা বিরম্বনায়।

কোম্পানীগঞ্জের একজন সিএনজি চালক বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে এখন আর আগের মতো মানুষের চলাচল না থাকায় আমরা যথেষ্ট পরিমাণ যাত্রী পাচ্ছিনা কিন্তু টাকা রোজগার হউক আর না হউক এমন এক দুঃসময়ে ঋণের কিস্তির টাকা সংগ্রহ করা আমাদের পক্ষে একেবারেই অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিস্তির টাকার জন্য এনজিও এর প্রতিনিধিরা যথাসময়ে টাকা না দিলে তারা বাড়ি ছাড়ছে না, যার ফলে সইতে হচ্ছে নানান ধরনের লাঞ্ছনা। এমন নাজুক পরিস্থিতি নিয়ে বিপাকে আমাদের মতো খেটে খাওয়া হতদরিদ্র মানুষের।

পাড়ুয়া বাজারের একজন ব্যক্তি যিনি মুদির দোকান পরিচালনা করে সংসার চালান। তিনি বলেন, আমি একটি এনজিও থেকে কিছু টাকা ঋণ নিয়ে একটি মুদির দোকান দিয়েছিলাম। এই টাকার কিস্তি প্রতি সপ্তাহে পঁচিশশত টাকা জোগার করতেই হয়। কিন্তু করোনার ভাইরাসের কারনে মানুষের চলাচল কম থাকায় আমি আগের মত ব্যবসা করতে পারছি না। যার ফলশ্রুতিতে আমি কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে পাড়ছি না।

দিনমজুর আতিক বলেন, এখন কেউ কাজের জন্য আগের মতো ডাকে না। কাজ না থাকলেও প্রতি সপ্তাহে আমার ঋণের কিস্তির টাকা কিভাবে পরিশোধ করবো তা নিয়ে এখন দুশ্চিন্তায় আছি। তবে দেশের বর্তমান সময়ে কিস্তির টাকা আদায় স্থগিত রাখার দাবি তুলেছে ভুক্তভোগীরা।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন আচার্যের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,করোনা ভাইরাসের কারনে কিস্তির টাকা আপাতত বন্ধ রাখার জন্য বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ করেছেন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT