রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ১৬ জুন ২০২১, ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৭:২৯ পূর্বাহ্ণ

শিরোনাম
◈ বিলাইভ মিউজিক স্টেশন থেকে আগামী রবিবার আসছে রাহিব খানের ❝তুই আশিকি❞ ◈ আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন সংগঠক মোস্তফা কামাল মাহদী ◈ বিএসআরএফ দপ্তর সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় মোসকায়েত মাশরেককে শুভেচ্ছা ◈ ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষন মামলা আসামীকে পুলিশের সহযোগীতার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন ◈ ঘাটাইল লক্ষিন্দর ইউনিয়নে টাকা ছাড়া হয় না ভাতা কার্ড ◈ রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের উদ্যোগে বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন ◈ জাগ্রত আছিম গ্রন্থাগারের উদ্যোগে স্থানীয় মাদ্রাসায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন ◈ কালিহাতীতে বাড়ছে করোনা, সামাজিক সচেতনতায় ইউএনও’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ অব্যাহত ◈ মুক্তাগাছায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৭ জনের জেল ◈ রায়পুরায় ট্রেনের সাথে প্রাইভেটকারের ধাক্কা, ঘটনার ৬ দিনপর এক পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু

করোনাকালে সফল উদ্যোক্তা লিনজা

প্রকাশিত : ১০:০২ AM, ২৩ মার্চ ২০২১ মঙ্গলবার ১৮০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

সাজেদুর আবেদীন শান্ত: ইসরাত জাহান লিনজা, বেড়ে ওঠা ও জন্ম রংপুরে। বাবা মনজুরুল হক লিটন একজন ব্যবসায়ী, মা লুৎফা বেগম রিনা গৃহিণী। দুই ভাইবোনের মধ্যে পরিবারের বড় সন্তান লিনজা। স্নাতক শ্রেণীতে পড়ার সময় বিয়ে হয়ে যায় লিনজার। পরে স্বামীর অনুপ্রেরণায় স্নাতক শেষ করেন তিনি।

বর্তমানে পড়াশোনার পাশাপাশি অনলাইনে নিজেকে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলছেন লিনজা। ছোটবেলা থেকেই তার ইচ্ছা ছিলো সে বড় হয়ে এমন কিছু করবে যেটা অনেক মানুষের অনুপ্রেরণার কারণ হবে।

লিনজা বলেন, ‘করোনা মহামারীর কারণে দেশ যখন লকডাউনে তখনই উইয়ের (ফেসবুক ভিত্তিক ই-কমার্স গ্রুপ) হাত ধরে আমি উদ্যোক্তা জীবন শুরু করি। শুরুর দিকে সব কিছুই অনেক কঠিন থাকে। শুরুতে আমার উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে যাওয়া আরো কঠিন ছিল। কারণ করোনা মহামারী তার উপর লকডাউন তারপর আবার শুরুটা আমি একা করেছিলাম। তখন এমন সহজ ছিল না অভিজ্ঞ মানুষজনের পরামর্শ পাওয়া। যাদের সঙ্গে শেয়ার করেছি যে আমি একটা বিজনেস করবো তারা বলেছে করোনা মহামারী শেষ হোক এখন মানুষ বাঁচবে কিনা তার ঠিক নেই আর এখন তুমি অনলাইনে বিজনেস শুরু করবে। যদি বেঁচে থাকো তারপর শুরু করিও। সত্যি কথা বলতে বিজনেস শুরুতে আমার হাজব্যান্ড ও আমাকে সাপোর্ট করেনি। তবে এখন সাপোর্ট করে। তাই যা কিছু করেছি তা নিজের বুদ্ধি থেকেই করেছি। পিছন থেকে টেনে ধরার মানুষ অনেক ছিল। মূলত যারা অভিজ্ঞ তাদের কাছে সহযোগিতা আশা করেছিলাম কিন্তু তারাই তাদের সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে টেনে ধরেছেন। যার জন্যই হয়তো কিছুটা এগিয়ে আসতে পেরেছি। আমার অনেক টাকা তখনো ছিলো না, আমার ইচ্ছা ছিল আমি যে যাই করি না কেন আমি নিজের টাকায় করব তাই, নিজের জমানো মাত্র ৬৫০০ টাকা দিয়ে উদ্যোগ শুরু করি। তবে আমার যা ছিলো তা হলো যোগ্যতা। কাজ করার চেষ্টা ও আগ্রহ।’

লিনজা আরও বলেন, ‘বর্তমানে আমি কাজ করছি ঢাকাইয়া জামদানি শাড়ি, থ্রি-পিস ও টাঙ্গাইলের শাড়ি নিয়ে। বর্তমান উইতে আমার পণ্যের মোট বিক্রিকৃত অর্থ ১,১০,৮৯৫ টাকা। উইতে আমি ১১ মাস একটিভ ছিলাম সেলের কথা চিন্তা না করে।
উই থেকে সবার অনেক অনেক সাপোর্ট পেয়েছি।উইয়ের হাত ধরে অনেক জেলায় আমার প্রোডাক্ট পৌছে দিতে সক্ষম হয়েছি। অনেক জেলায় একের অধিক বার গিয়েছে আমার প্রোডাক্টের রিপিট কাস্টমারও পেয়েছি অনেক। উইয়ের কারণেই প্রবাসী কাস্টমারও পেয়েছি।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমার স্বপ্ন উইয়ের হাত ধরে ‘চড়ুইঘর- Churoighor’ (ফেসবুক পেজ) এর পণ্য সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক। এইটাই আমার চাওয়ায়।

উইয়ের দু’জন মানুষের প্রতি আমি অনেক কৃতজ্ঞ। তারা হলেন শ্রদ্ধেয় রাজিব আহমেদ স্যার ও নাসিমা আক্তার নিশা আপু। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই আমরা দেশীয় পণ্যের সেরা প্লাটফর্ম পেয়েছি।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT