রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০, ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৭:০৬ পূর্বাহ্ণ

এরপর কে?

প্রকাশিত : ০৬:০৫ AM, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ Wednesday ২৩৫ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কড়া হুশিয়ারির পর চলমান কঠোর অভিযানে ‘এরপর কার পালা’—এমন প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে খোদ আওয়ামী লীগসহ দেশের সর্বত্র। টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ নেতাদের কেউ কেউ নিজেদের আইন-আদালতের ঊর্ধ্বে ভাব ছিলেন। এসব লোকের বিরুদ্ধে চলমান অভিযান প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের অনেক নেতা মনে করছেন, এবার যদি তাদের লাগাম টেনে ধরা যায়, তাহলে দলের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ইমেজও। এমন অবস্থায় আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের যে কারো বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে আরো কঠোর অবস্থানে থাকার বার্তা দেওয়ার পর দলের কেন্দ্রীয় পর্যায়ের অনেকের মধ্যে বাদ পড়ার আতঙ্কও বেড়েছে।

দলের হাইকমান্ডরা বলছেন, অপরাধী যত বড় হোক, যত প্রভাবশালী হোক, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। শেখ হাসিনা জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে সামনে অগ্রসর হতে পারলে দল ও দেশের দুর্নীতির বিরুদ্ধে মোটা দাগের শুদ্ধি অভিযান হতে পারে এটি। এ শুদ্ধি অভিযানে শুধু কেন্দ্রীয় কমিটিই নয়, দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কেন্দ্রীয় কয়েক নেতাও পদ হারানোর ভয় ও আতঙ্কে আছেন। দলীয় পদ থেকে বাদ পড়া নয়, চাঁদাবাজি ও অনিয়মের অভিযোগে সাংগঠনিক ব্যবস্থার মুখোমুখি হওয়ার পাশাপাশি গ্রেফতার আতঙ্কেও আছেন কেউ কেউ। টানা সাড়ে ১০ বছরের বেশি সময় ধরে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকায় প্রভাবশালী নেতা হিসেবে পরিচিত এমন কয়েকজনকেও গ্রেফতার করা হতে পারে বলে দলে গুঞ্জন আছে। বিতর্কিত কারো পাশে আইনি লড়াইয়ের জন্য দলীয়ভাবে না দাঁড়াতে দলের শীর্ষ পর্যায় থেকে নির্দেশ দেওয়া আছে। ক্ষমতাসীন দলের নীতিনির্ধারক পর্যায়ের সূত্র এসব তথ্য জানায়।

সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় দুই নেতাকে চাঁদাবাজি, পদবাণিজ্য ও মাদক সেবনের অভিযোগে পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে মূলত দল ও সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতৃত্বের প্রতি হুশিয়ারি বার্তা দিয়েছেন। ছাত্রলীগের দুই নেতাকে সরানোর পর যুবলীগের কয়েক নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, তা কোথায় গিয়ে থামে; তা কেউ বলতে পারছেন না।

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও বলেছেন, কারো প্রতি বিশেষ নজর নয়, প্রচলিত আইনে সবাইকে সমান দেখতে হবে। এরপর থেকেই সংগঠনগুলোর নেতাদের মধ্যে গ্রেফতার আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

এসব বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গণমাধ্যমকে বলেন, ‘শেখ হাসিনা জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে অগ্রসর হচ্ছেন। অপরাধী যত বড়ই হোক না কেন, যতই প্রভাবশালী হোক না কেন; কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমি স্পষ্টভাবে বলতে চাই, টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজরা সাবধান হয়ে যাও। শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। এ অ্যাকশন শুধু ঢাকায় নয়, সারা বাংলাদেশে চলবে। অপরাধী আমাদের দলের হলেও শাস্তি দেবই। এটাই আমাদের সিদ্ধান্ত। সেই লক্ষ্য নিয়েই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এগিয়ে যাচ্ছেন।’

কাদের আরো বলেন, ‘অপরাধ করে পার পাওয়ার প্রবণতা আওয়ামী লীগে নেই। দলের যারা দুর্নীতিতে জড়িত, তাদের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এই আমলে অপকর্ম হয় না, এটা আমরা বলি না; কিন্তু অপকর্ম হলেই আওয়ামী লীগে শাস্তির ব্যবস্থা আছে। এটা অন্য দলে নেই।’

দলীয় তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের ২০ ও ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনে এবার দলীয় শীর্ষ পদে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে পারেন দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা। এমন পরিবর্তনের কথা এখন দলের সবার মুখে মুখে। দলকে যথাসম্ভব বিতর্কমুক্ত করে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যেই এমন চিন্তা করা হচ্ছে। আগামী সম্মেলনের মধ্য দিয়ে নতুনদের অগ্রাধিকার দেওয়ার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় কমিটির বিভিন্ন পদে জনপ্রিয় নেতাদের দায়িত্ব দিয়ে চমক সৃষ্টির পরিকল্পনার কথাও শোনা যাচ্ছে। এ রকমটা হলে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বাদ পড়তে পারেন বেশ কয়েকজন। কার কেমন পারফরম্যান্স—এ বিষয়গুলো দেখার জন্য দলীয় প্রধান গঠিত আটটি বিভাগীয় টিম সারা দেশে কাজ করছে। এ ছাড়া দলের সাংগঠনিক কর্মকান্ডে আরো গতি আনতে নতুন পরিকল্পনা করছে আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুর গড়া ও মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেওয়া এ দলকে সাংগঠনিকভাবে আরো শক্তিশালী করতে চান দলীয় প্রধান।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT