রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১২:৩৯ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ কুড়িগ্রামে দুই ছাগল চোরকে আটক করলেন ওসি নিজেই ◈ কালিহাতীতে বিধিনিষেধ না মানায় ১১ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা ◈ অপহৃত কিশোরীকে পতিতালয়ে বিক্রির হুমকিতে মুক্তিপন আদায়ের চেষ্টা; ব্যবস্থা নিল পুলিশ ◈ ঠাকুরগাঁও এর হরিপুরে বিপুল সংখ্যক মাক্স ও সাবান বিতরণ ◈ নারায়ণগঞ্জে ছু‌রিকাঘা‌তে যুবক খুন ◈ কালিহাতীতে নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান ◈ ঘাটাইলের সাবেক এমপি মতিউর রহমানের স্ত্রীর মৃত্যু ◈ “হোসাইন’র কথায় অবমুক্ত হলো ইসলামিক গান আল-কোরআন” ◈ ঠাকুরগাঁও হাসপাতালে ৫টি ভেন্টিলেটর ও ১টি আইসিইউ মনিটর হস্তান্তর ◈ শ্রীনগরের রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি হলেন আওলাদ হোসেন

উল্লাপাড়ায় জেডিসি পরিক্ষা কেন্দ্র থেকে ৩ ব্যাগ নকল উদ্ধার

প্রকাশিত : ০৮:৫৮ PM, ৭ নভেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ১৬১ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

উল্লাপাড়ায় বৃহস্পতিবার জেডিসি পরীক্ষা কেন্দ্র-২ কয়ড়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসায় সাড়াশি অভিযান চালিয়ে ৩ ব্যাগ নকল জব্দ করেছে উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

এ সময় বই খুলে লেখার সময় কয়ড়া ফাজিল সিনিয়র মাদ্রাসার নুপুর খাতুন নামের এক ছাত্রীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার ওই পরীক্ষা কেন্দ্রে জেডিসির বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, নবম শ্রেণী ভোকেশনাল শাখায় গণিত পরীক্ষা চলছিল।

শুরু থেকে এ পরীক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্বরতদের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বিশেষ সুবিধায় নকল করে লেখার সুযোগ দেয়ার অভিযোগ উঠে।

খবর পেয়ে ওই কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ মাহবুব হাসান,একাডেমিক সুপারভাজার মোসলেম উদ্দিনকে সাথে নিয়ে অভিযান চালান উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আরিফুজ্জামান।

পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট আগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কেন্দ্রটির প্রতিটি কক্ষে কঠোর হুশিয়ারি ও সার্চ করে শিক্ষার্থীদের কাছে থাকা ৩ ব্যাগ নকল,ডজন খানেক মুঠোফোন জব্দ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এ অভিযানের সময় ভয়ে পরীক্ষার্থীরা যে যার মত নিজেদের কাছে লুকানো নকল সেচ্ছায় দিয়ে দেন।

এ সময় কেন্দ্রের কয়ড়া ফাজিল সিনিয়র মাদ্রাসার ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের নিজেদের একই বিভাগের শিক্ষক দিয়ে পরীক্ষা নেয়ার বিষয়টি প্রশাসনের হাতে ধরা পড়ে। একই সাথে এই কেন্দ্রের শিক্ষক কর্মচারীরা শিক্ষার্থীদের বিশেষ সুবিধায় পরীক্ষা দেয়ার বিষয়টিও প্রশাসনের নজরে আসে।

এই পরীক্ষা কেন্দ্রে ২৯ টি মাদ্রার ৯৩২ জন জেডিসি ও নবম শ্রেণীর ভোকেশনাল শাখার ১৩০ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।।

কেন্দ্রটিতে শিক্ষার্থীদের নকলের বিশেষ সুববিধা দিয়ে পাশ করানোয় উপজেলা শহরের কাছের অনেক প্রতিষ্ঠানও আগ্রহ দেখিয়ে ওই কেন্দ্রে অর্ন্তভূক্ত হয়েছে। প্রতিবারই এই পরীক্ষা কেন্দ্রে এমন অনিয়ম করে পরীক্ষা নেয়া হয় বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে।

বুধবার একই অভিযোগে আরবি ২য় পত্র পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের অসদুপায় অবলম্বনে সহযোগিতা করা এবং পরীক্ষা কক্ষে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে চার শিক্ষককে বহিস্কার এবং কেন্দ্র সচিবকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামান এই কেন্দ্র পরিদর্শন করতে গিয়ে শিক্ষকদেরকে এ সাজা প্রদান করেন।

বহিষ্কিত শিক্ষকরা হলেন, দহকুলা মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মোঃ শাহাদৎ হোসেন, ভাদালিয়াকান্দী দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক আব্দুর রউফ, গয়হাট্টা বারো আউলিয়া মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মোঃ খায়রুল ইসলাম এবং রাউতান দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক খুরশিদ আলম।

উল্লিখিত বহিস্কৃত শিক্ষকগণ পরীক্ষা কক্ষে শিক্ষার্থীদেরকে একে অপরের খাতা দেখে লেখায় সহযোগিতা এবং সরাসরি শিক্ষার্থীদেরকে প্রশ্নের উত্তর বলে দিচ্ছিলেন। ফলে এদের বিরুদ্ধে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর এই কেন্দ্রে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নবম শ্রেণীর ফাইনাল পরীক্ষা চলাকালে একই কারণে বেশ কয়েকজন শিক্ষককে বহিস্কার করা হয়।

এছাড়া কয়ড়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ওই পরীক্ষা কেন্দ্র সচিব মাওলানা শাহজাহান আলীকে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসেন একাডেমিক সুপারভাইজার মোসলেম উদ্দিনকে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

অব্যহতি পাওয়া কেন্দ্র সচিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে এই কেন্দ্রের পরীক্ষায় যেসব প্রতিষ্ঠান যুক্ত হয়েছেন তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাদের প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় বিশেষ সুবিধা দিয়ে পাশ করিয়ে দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আরিফুজ্জামান জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে পরীক্ষা শুরুর আগে কয়ড়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে অভিযান চালিয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৩ ব্যাগ নকল জব্দ হরা হয়।

বই দেখে লেখার সময় এক শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি উল্লেখ করেন এই কেন্দ্রে নানা অনিয়ম অব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।

এ কারনে উপজেলা সহকারীর কমিশনার (ভূমি) ও একাডেমিক সুপারভাইজারকে সার্বক্ষনিক মনিটরিংয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। কোন পরীক্ষা কেন্দ্রে আমরা নূন্যতম অব্যবস্থাপনা মেনে নিব না।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT