রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৪:৪১ অপরাহ্ণ

উদ্যোক্তা হতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন তরুণরা

প্রকাশিত : ০৬:৩৯ AM, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শুক্রবার ৩০৬ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

 

নিজেরাই নতুন কিছু করতে চান দেশের হাজারো তরুণ। তাদের মধ্যে অনেকেই বেশ কিছু ব্যবসায়িক উদ্যোগ এগিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টাও শুরু করেছেন। অনেকে উদ্ভাবনী পরিকল্পনা বাস্তবে রূপ দিতে অর্থায়নসহ কারিগরি সহায়তার খোঁজে রয়েছেন। এমন উদ্যমী তরুণদের পাশে থাকতে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এতে বেশ সাড়াও মিলেছে। তরুণ অনেকেই তাদের উদ্ভাবনী পরিকল্পনা নিয়ে সংস্থার কাছে হাজির হয়েছেন। তাদের মধ্যে প্রথম ধাপে ১৬০০ জনকে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে নির্বাচন করা হয়েছে।

ইতিমধ্যে জেলা পর্যায়ে এসব তরুণ উদ্যোক্তাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এরপর তাদের নতুন উদ্যোগগুলো বাস্তবায়নের সুযোগ করে দেবে বিডা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগের মধ্যে নতুন উদ্যোক্তা তৈরি অন্যতম। দেশে বিনিয়োগ বিকাশে উদ্যোক্তা তৈরির নির্দেশনা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

বিডা আগামী দু’বছরের মধ্যে ২৪ হাজার উদ্যোক্তা তৈরির পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে। এ জন্য নেওয়া প্রকল্পে প্রতি জেলায় ৩৭৫ তরুণকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এর মধ্যে কোনো জেলায় আগ্রহীর সংখ্যা কম থাকলে পাশের জেলার অধিক সংখ্যক তরুণকে সুযোগ দেওয়া হবে। দেশের সব এলাকা থেকে নতুন উদ্যোগের ভাবনা ও উদ্ভাবনী পরিকল্পনা নিবন্ধনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তাদের মধ্যে থেকে বাছাইয়ের পর প্রশিক্ষণ দিয়ে ব্যবসা উদ্যোগ বাস্তবায়নের কাজ শুরু করতে সহযোগিতা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিডার কর্মকর্তারা। উদ্যোক্তাদের অর্থায়নের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক, এসএমই ফাউন্ডেশনসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগসূত্র স্থাপন করে দেওয়া হবে। ব্যাংক থেকে ঋণ পেতে প্রক্রিয়াগতসহ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করবে বিডা।

বিডার উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক আবুল খায়ের মোহাম্মদ হাফিজুল্লাহ খান সমকালকে বলেন, প্রথম ধাপে প্রতি জেলায় ২৫ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। গত আগস্টে আট জেলায় প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। চলতি মাসে শুরু হয়েছে ৫১ জেলায়। বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বাকি পাঁচ জেলাতেও চলতি মাসেই প্রশিক্ষণ শুরু হবে। তিনি বলেন, উদ্যোক্তা তৈরি প্রকল্পে বেশ সাড়া দিয়েছেন তরুণরা। সবচেয়ে বেশি ১২ হাজার করে প্রস্তাব জমা হয়েছে খুলনা ও চট্টগ্রাম জেলায়। এর পর ঢাকা ও রাজশাহী থেকে ৮ হাজার করে প্রস্তাব মিলেছে। এ ছাড়া বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও দিনাজপুর জেলা থেকে অনেক বেশি প্রস্তাব এসেছে। তিনি জানান, এসব প্রস্তাব যাচাই-বাছাই করে তালিকা করা হয়েছে। প্রথম ধাপে যারা সুযোগ পাননি, তাদের পরবর্তী ধাপে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। নিয়মিত নিবন্ধন ও প্রশিক্ষণ ১৫ মাসব্যাপী চলবে।

হাফিজুল্লাহ খান বলেন, ইতিমধ্যে প্রতি জেলায় উদ্যোক্তা উন্নয়ন ও বিনিয়োগ সহায়তা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। যেসব জেলার প্রস্তাব বেশি, প্রয়োজনে সেখানে আরও কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। ইতিমধ্যে ঢাকায় আরও চারটি কেন্দ্র স্থাপনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য অনুযায়ী শহর ও গ্রামাঞ্চলের বেকার ও শিক্ষিতদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে, যাতে তারা বিনিয়োগ-সংক্রান্ত ধারণা পান। তাদের প্রচলিত আইন, বিধিবিধান, নিয়ম ও অর্থায়নের বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT