রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

১০:৫৫ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ কলমাকান্দায় যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ◈ তাহিরপুরে দুর্গাপূজা উদযাপন পরিষদের সাথে থানা পুলিশের মতবিনিময় ◈ ভালুকায় তিতাস গ্যাস অফিসের অনিয়ম-দুর্নীতি এখন ‘নিয়ম’ ◈ করোনার কারনে দীর্ঘদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে এক প্রতিষ্ঠানের ৮৫ স্কুল ছাত্রী ◈ হামলার প্রতিবাদে শরীয়তপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের অবস্থান ◈ বেলান নদীর সাঁকো ভেঙে লাখো মানুষের ভোগান্তি ◈ সেলিম মন্ডল কে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় এলাকাবাসী ◈ চরম আর্থিক সংকটে নির্বাচন থেকে পিছু হটলেন ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী জসিম ◈ ভূঞাপুরে “প্রতিভা ছাত্র সংগঠন” এর চারা রোপন কর্মসূচির উদ্বোধন ◈ ফুলবাড়ীয়ায় ব্যক্তি উদ্যোগে রাস্তা সংস্কার

ইউপি সদস্যের অবৈধ বালু উত্তোলন, হুমকিতে যমুনার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ

প্রকাশিত : ০১:৩১ PM, ২৯ নভেম্বর ২০১৯ শুক্রবার ৩০০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

স্টাফ রিপোর্টার :

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে যমুনা নদীর তীরবর্তী গোপালপুর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের পাশে থেকে অবৈধ ড্রেজারের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করছে কৈজুরি ইউনিয়নের ইউপি সদস্য প্রভাবশালী বালু ব্যাবসায়ী মোঃ চুন্নু। বাঁধের গাঁ ঘেঁষে গভীর গর্ত করে বালু উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়ছে কোটি কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত গোপালপুর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ।

গোপালপুর মোড় থেকে হাঁট পাচিল পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার এই বাঁধটি ইতিপূর্বে কয়েকবার ভেঙ্গে গেছে। এ বছরের জানুয়ারি মাসে পুনরায় কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মাণ করা হয় বাধটি। প্রতিবছর বাঁধটি ভেঙে যাওয়ার ফলে প্লাবিত হয় শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী, জালালপুর, বেলতৈল ইউনিয়নের প্রায় ২০টি গ্রাম ও হাজার হাজার মানুষ ও বিনষ্ট হয় গোঁ খাদ্য । নষ্ট হয়ে যায় ফসলি জমি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বেশ কিছু তাঁত কারখানা। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে গোপালপুরের সাথে শাহজাদপুর শহরের যাতায়াত ব্যাবস্থা।

এ অবস্থায় এমন গুরুত্বপূর্ণ বাধের একেবারে গোড়া থেকে অর্থলোলুপ বালুদস্যুদের অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের কারনে বাঁধটি আবারো ভেঙে পড়তে পারে। ফলে যেমন কোটি কোটি টাকা লোকসান গুণতে হবে সরকারের তেমনি ক্ষতিগ্রস্থ হবে এলাকার হাজার হাজার মানুষ।

এ ব্যাপারে প্রভাবশালী বালু ব্যাবসায়ী ও ড্রেজারের নিয়ন্ত্রক চুন্নু মেম্বারের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুমতি নিয়েই বালু তুলছি।

ড্রেজারের অনুমতির ব্যাপারে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোঃ শামসুজ্জোহার কাছে মুঠোফোনে জানেতে চাইলে তিনি জানান, বালু উত্তোলনের জন্য কাউকে কোন অনুমতি দেওয়া হয়নি।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT