রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১, ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০৭:২৮ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব শাহ আলমের নির্বাচনী উঠান বৈঠক। ◈ তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় মাদকের চালান সহ বিভিন্ন মালামাল আটক ◈ ফুলবাড়ীর ছয় ইউনিয়নে নৌকার মাঝি হলেন যারা ◈ সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে কলমাকান্দায় মানববন্ধন ◈ ডাচ্-বাংলা ব্যাংক শশিকর বাজারে শুভ উদ্বোধন ◈ তাহিরপুরে তথ্য অধিকার বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষন কমিটির সভা ◈ রাজারহাটে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন ত্রাণ ও দূর্যোগ প্রতিমন্ত্রী ◈ রংপুরে তিস্তা পাড়ের বন্যার্তদের পাশে জেলা আ’ লীগ সাধারন সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু ◈ শাহজাদপুরে ইউপি নির্বাচনে পুনরায় নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল বাতেনের সমর্থনে জনসভা অনুষ্ঠিত ◈ জামালগঞ্জে ইমামের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আশুলিয়ায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যসামগ্রী তৈরি

প্রকাশিত : ০৫:৪৫ PM, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ সোমবার ২২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

ঢাকার আশুলিয়ায় যত্রতত্রে গড়ে উঠেছে মানহীন ফাস্টফুড খাবার তৈরির বেকারি। এসব বেকারির বেশিরভাগেরই নেই কোন বিএসটিআই অনুমোদন। ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা এসব বেকারির বিরুদ্ধে প্রশাসনের নেই কোন খবরদারি।

আশুলিয়া সহ সাভার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গনি শাহ বেকারি,সু রুচি বেকারী,গাউছিয়া বেকারি সহ নানা নামে যে সকল বেকারি রয়েছে তার বেশিরভাগই অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে নিম্নমানের রুটি-বিস্কিট কেক সহ বিভিন্ন মুখরোচক খাবার তৈরি করে আসছে।

পঁচা দুর্গন্ধে এসব বেকারিতে প্রবেশ করাই যায় না, দম বন্ধ হয়ে আসার উপক্রম হয়। আর এসব মানহীন ও অস্বাস্থ্যকর নোংরা খাবার খেয়ে সাধারণ জনগণের পেটে পীড়াসহ নানা রোগ দেখা দিচ্ছে। এছাড়া এসব বেকারিতে নয়/দশ বছরের কোমলমতি শিশুদের কাজ করতে দেখা যায়।

গতকাল সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় , দুই তরুণ মাটির মেঝেতে কেক রেখে তা পেকেটিং করছেন। তরুণদের শরীরের ঘাম ঝরে পড়ছে সেই কেকের ভেতরে। পাশেই খোলা ড্রামে রাখা পোড়া তেল। তেল ও অন্যান্য খাবারের ওপর মশা-মাছি মরে আছে।

এছাড়া বিভিন্ন হাট-বাজারে নানা রকমের কেক-রুটি-বিস্কিট আরও নানা রকমের নানা ধরনের মুখরোচক খাবার পাওয়া যায়, এগুলোর প্যাকেটের গায়ে উৎপাদনের তারিখ ও মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ পর্যন্ত নেই। নেই বিএসটিআই’র অনুমোদন। নেই পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র।

সাধারন জনগণ অভিযোগ করে বলেন, আমরা তো ওইসব বেকারির মালিকদেরকে আর মারধর করিতে পারি না। প্রশাসনের লোকেরা দুই-তিন মাস পরপর এসে কিছু টাকা জরিমানা করে চলে যায়। কিন্তু এসব বেকারী মালিকরা বেপরোয়াভাবে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে উৎপদন অব্যাহত রেখে চলেছেন।

আশুলিয়ার গৌরিপুরের নামক স্থানে গাউছিয়া বেকারির মালিক খাইরুল জানায়, আমরা গরিব মানুষ। অল্প পুঁজিতে ব্যবসা করি। আমাদের পক্ষে বিএসটিআই ও প্রশাসনের অনুমোদন নিয়ে ব্যবসা চালিয়ে রাখা সম্ভব নয়। বেকারির কারিগরেরা ভালোভাবে হাত-পা ধুয়ে খাবার তৈরি করে।’

এছাড়া আশুলিয়া ইউনিয়নে সু-রুচি বেকারি নামে একটি বেকারি যার কোনো ধরনের অনুমোদন নেই অথচ বিগত অনেক বছর ধরে বেকারি চালিয়ে আসছেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘ কয়েকটি বাড়িতে গোপনে অবৈধভাবে বেকারি সামগ্রী তৈরি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পেয়েছি। দু-এক দিনের মধ্যে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT