রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১০:৪০ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ সম্প্রীতির হবিগঞ্জ সংগঠনের জেলা শাখার সিনিয়র সদস্য নির্বাচিত হলেন শুভ আহমেদ ◈ কবিতা : শীতের পিঠা – মোঃ শহিদুল ইসলাম ◈ ধামইরহাটে জঙ্গিবাদ মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুবলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ ◈ ধামইরহাটে দার্জিলিং জাতের কমলার চারা রোপন ◈ ধামইরহাটে মাস্ক না পরায় বিভিন্ন শ্রেনি পেশার মানুষের জরিমানা, সচেতন করতে রাস্তায় নামলেন এসিল্যান্ড ◈ সকল ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধীদের প্রবেশগম্যতা নিশ্চিত করার আহ্বান ◈ ধামইরহাটে অজ্ঞাত রোগে মাছে মড়ক, ৩০ লাখ টাকার ক্ষতিতে মৎস্যচাষী’র হাহাকার ◈ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলেই জনকল্যানমূলক কাজ সবচেয়ে বেশি হয়েছে- এমপি শাওন ◈ উদয়কাঠী ইউনিয়ন পরিষদের স্মার্ট কার্ড বিতরনের উদ্বোধন করেন চেয়ারম্যান ননি ◈ প্রবাসী সাংবাদিক কায়সার হামিদ হান্নানের জন্মদিনে শুভেচ্ছা

আরেকটু দেরি হলেই ঘটতো ভয়ানক কিছু : ইমরুল

প্রকাশিত : ০৭:২১ AM, ৩ অক্টোবর ২০১৯ Thursday ১২০ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে দলে ছিলেন না ইমরুল কায়েস। ছেলের ডেঙ্গু চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় তিনি খেলতে পারেননি। আরেক অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল না থাকায় জোর সম্ভাবনা ছিল তার। ছেলের চিকিৎসা শেষে এবার ইমরুল ব্যস্ত হয়েছেন ব্যাট বল নিয়ে। মাঠে ফিরেই জানালেন ছেলেকে নিয়ে জীবনের কঠিন সময় পার করার কথা।

ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে ছেলেকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করান ইমরুল। কিন্তু যেদিন হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে ওই দিনই ঘটে বিপত্তি। আবার জ্বর আসে, শরীরে র‍্যাশ ওঠে। তার ছেলে আক্রান্ত হন জটিল রোগে। দেশের চিকিৎসকরা কী রোগ এটাই বুঝতে পারছিলেন না। তখন ইমরুল তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত নেন দেশের বাইরে নিয়ে যাবেন। বিসিবি প্রধানের সহায়তায় একদিনের মধ্যে ভিসা করে সিঙ্গাপুরে নিয়ে ছেলেকে চিকিৎসা দেন এই বাহাতি ব্যাটসম্যান।

আজ বুধবার ইমরুল বলেন, ‘ওর ডেঙ্গু হয়েছিল, নরমাল একটা রোগ। ওটার জন্য আমি হাসপাতালে ভর্তিও করলাম। কিন্তু যেদিন রিলিজ হয়ে যাবে ওইদিন হঠাৎ করে ওর জ্বর আসে, রেশ ওঠে, ফুলে গেছে মানে খুব ডেঞ্জারাস একটা অবস্থা। ডাক্তার ফাইন্ডআউট করতে পারে না আসলে প্রবলেম কী। পরে ওকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাই।’

আর একটু দেরি হলেই ঘটতো ভয়ানক কিছু-এ কথা জানিয়ে ইমরুল বলেন, ‘সিঙ্গাপুরে ডাক্তাররা ফাইন্ডআউট করতে পারে রোগটা কী, ওইদিনই একটা ইনজেকশন দেওয়া লাগতো। এটা ছিল সপ্তম দিন কিন্তু এটা অষ্টম দিন হয়ে গেলেই খুব প্রবলেম হয়ে যেত। লাকিলি ভিসাটা করতে পেরেছি। পাপন ভাই আমাদের খুব হেল্প করেছে। একদিনের ভেতর ভিসা করে দিয়েছে।’

ইমরুল জানান, এই কয়দিন তার জন্য, তার ফ্যামিলির জন্য খুবই কষ্টকর ছিল। তাই সকিছু থেকে বিরতি নিয়ে ছেলেকে নিয়ে ছুটোছুটি করেছেন। তিনি বলেন, ‘ফ্যামিলি, ছেলে যদি অসুস্থ হয়ে যায়। তাহলে এত কষ্ট করে তো লাভ নাই।’

আগামী ১০ অক্টোবর থেকে শুরু হবে ঘরোয়া ক্রিকেটের জমজমাট আসর জাতীয় লিগ। সবকিছু ঠিক থাকলে ইমরুলকে দেখা যাবে ব্যাট হাতে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT