রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০২:১২ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ পত্নীতলায় ফেন্সিডিল ও মটরসাইকেলসহ ১ যুবক আটক ◈ নোয়াখালীতে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রি ও লাইসেন্স না থাকায় ৪টি ফার্মেসিকে জরিমানা ◈ নোয়াখালীতে পুকুরের পানিতে ডুবে ভাইবোনের মৃত্যু ◈ বেলকুচিতে মানববন্ধনের পর ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনে বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ ◈ বগুড়াব শেরপুরে শ্রী-কৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ ◈ বিচার বর্হিভূত হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএনপি’র মানববন্ধন ◈ ঈশ্বরদীতে রেলওয়ের ১১০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন ◈ মাদারীপুরের ডাসারে র‌্যাব-৮ এর অভিযানে মদ ও বিয়ার সহ আটক একজন ◈ বশেমুরবিপ্রবির কম্পিউটার চুরির ঘটনায় ১৯ প্রহরীকে শোকজ নোটিশ ◈ শ্রীনগরে মাদক কারবারি স্বপন গ্রেফতার

আপনার দুঃসাহস ও দূরদর্শিতা স্মরণীয় হয়ে থাকবে

প্রকাশিত : ০৪:৫৭ PM, ২৭ জুলাই ২০২০ Monday ৭১ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

সুজা ভাইজান আওয়ামী রাজনীতির জন্য নিজের জীবনকে উৎস্বর্গ করে প্রমাণ করে গেছেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং দেশরত্ন শেখ হাসিনার ভালবাসার প্রতি কতটা অবিচল থাকাযায়। মুক্তিযোদ্ধা বা ৭৫ পরবর্তী করুণ সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আওয়ামীলীগ প্রতিষ্ঠা করার জন্য তার যে অবদান খুলনাবাসীসহ রাজপথ নির্দ্বিধায় তাকে আজীবন স্মরণ করবে। অাওয়ামীলীগের দুঃসময়ে আদালত আর কারাগার ছিল সুজা ভাইজানের নিত্যদিনের সঙ্গী। শত শত মিথ্যা মামলা নিয়েও আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করতে দিনের পর দিন খুলনা জেলার সকল উপজেলার পথে প্রান্তরে কাজ করেছেন তৃনমুলের নেতা কর্মীদের সঙ্গে। এমন কোন স্থান নাই যেখানে সুজা ভাইজানের পদচারণা পড়েনি।তিনি অাজীবন দল ও মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন।
কমার্স কলেজে ছাত্র রাজনীতি করার সময় সুজা ভাইজান এবং খালেক ভাইয়ের খুবই আস্থাভাজন হওয়ার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার।পরবর্তীতে দক্ষিণ বঙ্গের অবিভাবক শেখ হেলাল ভাই, খালেক ভাই এবং সুজা ভাইজানের সমন্বয় এর সিদ্ধান্তে জেলার রাজনীতি করার সুবাদে সুজা ভাইজানের স্বানিধ্যে থাকার সুযোগ হয়েছিল আমার।
১৯৮৬-৯০ স্বৈরাচারী এরশাদ, ১৯৯১-৯৬ বিএনপি ক্ষমতায় থাকা কালীন সময় ট্রাফিক আইল্যান্ডে যুবকমান্ড আমাদের উপর হামলা চালিয়ে ছিল, সঙ্গে সঙ্গে ভাইজান প্রতিহত করেছিল, তার কোমরে থাকা লাইসেন্স কৃত পিস্তল দিয়ে।
১৯৯৬-২০০১ সরকার দলীয় হুইপ থাকাকালীন সময়েও সর্বদায় তার পাশে থেকেছি। তিনি আমাকে খুবই বিশ্বাস করতেন এবং ভালবাসতেন।দল বা নিজ প্রয়োজনে গোপনীয় অনেক বিষয় বা কাজ আমাকে দিয়ে সম্পন্ন করাতেন।আমার জীবনের দীর্ঘসময় কেটেছে সুজা ভাইজানের সাথে। ভাইজানের সাথে মিশে আছে কত স্মৃতি কত কথা।
ছাত্রলীগের সভাপতি থাকাবস্থায় তারই সকল উপদেশ – পরামর্শ আমার দায়িত্ব খুবই সহজ করেছে। তিনি সব সময় ছিলেন সাহসী এবং আপোষহীন নেতা।খুলনাসহ সমগ্রদেশে মানুষ একক ভাবে “ভাইজান” হিসাবেই চেনেন।
ক্লিনহার্ট অপারেশন নামে বিএনপি- জামাতের যে নরকীয় তান্ডব চালিয়েছিল তার প্রথম সারির শিকার ছিলেন ভাইজান। তার উপর যে অমানুষিক নির্যাতন করা হয়েছি তা বলার বাহুল্য রাখে না। আমরা সে সময় রংপুর কারগারে গিয়েছিলাম তাকে দেখতে। এখনও রংপুর কারাগারের সে দৃশ্য চোখে ভাসলে গায়ে শিহরণ জাগে। আমরা অবাক হয়েছিলাম সেদিন তাকে স্বান্তনা দিতেই উল্টো তিনিই আমাদের স্বান্তনা দিয়েছিলেন। জেল খানায় বসে সাধারণ মানুষের খোঁজ খবর রাখতেন সর্বদা।অথচ নিজেই জীবন – মরণ সন্ধিক্ষণে।
সুজা ভাইজান সর্বদা দল ও কর্মীদের মূল্যায়ন করতেন। ভাইজানের রাজনৈতিক দূরদর্শিতা তার কর্মীরা সারাজীবন মনে রাখবে একবার কোন নেতা কর্মীর নাম শুনলে সেটা মনে রাখতে পারতেন।
সাধারণ মানুষের সুখ – দুঃখ, ব্যাথা – বেদনা নিজের মতন করে মোকাবেলা করতেন।তার সবচেয়ে বড় গুণ ছিল যেকোন পরিস্থিতি মুহুর্তের ভিতর সামাল দিয়ে দক্ষ রাজনীতিবীদের পরিচয় দিতেন। তার ব্যক্তিত্ব, ষ্মার্টনেস,স্মরণ শক্তি, দূরদর্শিতা,কর্ম ক্ষমতা ছিল তুলনাহীন। যে কোন মানুষ প্রথম দর্শনেই মুগ্ধ হয়ে যেত।তার সাংস্কৃতিক এবং ক্রিড়াঙ্গানে অপরিসীম ভূমিকা চিরস্মরনীয়। তিনি ছিলেন বহু গুনে গুনান্বিত একজন মানুষ। দলের জন্য নিজের জীবন উৎস্বর্গ করে সেটা প্রমাণ করেছেন। দল কে তিনি সব কিছু উজাড় করে দিয়েছেন বিনিময়ে কি পেয়েছেন সেটা জানি না তবে তিনি যে লক্ষ লক্ষ মানুষের হৃদয়ে মনি কোঠায় আছেন সেটা তার শেষ বিদায়ে প্রমাণিত। লক্ষ হৃদয় জয়ী মানুষের অমর নেতা প্রিয় ভাইজান।স্বচিত্র হৃদয়ে আপনি থাকবেন আজীবন। ভাল থাকুন পরপারে।
আপনি ওপারে বসে দোয়া করবেন ভাইজান,আপনার স্নেহের অসিত হয়ে রাজনীতিতে যেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারি জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে যেন আজীবন কাজ করে যেতে পারি।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT