রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

০২:৪৬ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ নারীর সম্ভ্রম হারানোর অভিযোগে শ্রীনগরে ভন্ড ফকির গ্রেফতার ◈ কালিহাতীতে অজ্ঞাত ট্রাকের চাপায় বৃদ্ধ নিহত ◈ টেক‌নোল‌জিষ্ট আ‌ছে মে‌শিন নেই, মে‌শিন আ‌ছে টেক‌নোল‌জিষ্ট নেই ◈ পুলিশ সদস্য নিয়োগে ডামুড্যা থানা পুলিশের প্রচার অভিযান”চাকরি নয়, সেবা”কনেস্টেবল পদে নিয়োগ ◈ কারিতাস সবুজ জীবিকায়ন প্রকল্পের উদ্যোগে নগদ অর্থ বিতরণ ◈ মধ্যনগরে ভ্রাম্যমান আদালতে জরিমানা ◈ পীরগাছায় খাদ্য ভিত্তিক পুষ্টি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্টিত ◈ ভূঞাপুরে আঙ্গুল কেটে ফেলা সেই কাউন্সিলরকে কারাগারে প্রেরণ ◈ ডামুড্যা উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত। ◈ তাহিরপুর সীমান্তে বারকী নৌকাসহ ভারতীয় কয়লা ও পাথর আটক

আক্কেল দাঁতের সমস্যা ও করণীয়

প্রকাশিত : ০৭:৪১ AM, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বুধবার ৫৩২ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

সাধারণত ১৭ থেকে ২১ বছর বয়সে আক্কেল দাঁত উঠে থাকে। এই বয়সে একজন মানুষ তারুণ্যের ছেলে মানুষি ছেড়ে দায়িত্ববান ব্যক্তিতে পরিনত হন। এ কারনেই সবদেশে সকল সভ্যতায় আক্কেল দাঁত উঠাটাকে পরিপূর্ণ মানুষে প্রদার্পনের প্রতীক হিসেবে ধরা হয়।

আমাদের দুইপাটি চোয়ালে ১৬টা ১৬টা করে মোট ৩২টা দাঁত থাকে। এর মধ্যে সবচেয়ে শেষের চারটি হচ্ছে আক্কেল দাঁত। চোয়ালের দৈর্ঘ্য যদি মোট দাঁতের পরিমাণের চেয়ে কম হয় তবে শেষ চারটি দাঁত মুখগহ্বরে জায়গা করে নেয়ার প্রতিযোগিতায় পেরে উঠেনা। তখন তারা একে অপরকে জড়িয়ে রয়ে যায় মাড়ির নিচে। অনেক সময় মাড়ির ভেতর দিয়ে একটু উঁকি দেয়ার চেষ্টা হকরে। কিন্তু এই জড়িয়ে রাখাটাই কাল হয়ে দাঁড়ায় তাদের জন্য। কারন এর জন্য দাঁতের মাঝখানে সুপ্ত জায়গা তৈরী হয়। সেখানে খাবার কণা জমা হয় এবং তা ব্রাশ করেও পরিষ্কার রাখা যায় না সবসময়। আর ঠিকমত দাঁত উঠতে না পারলে দাঁত ও মাড়ির মাঝখানে পকেট তৈরি হয়। এখানে খাবার জমে মাড়ির ইনফেকশন বা প্রদাহ হতে পারে।

আরো ভয়ংকর হল অনেকদিন ধরে খাবার জমে থাকতে থাকতে সামনের দাঁতে caries বা দাঁতের ক্ষয় হতে পারে। আর তারপরই শুরু হয় প্রচণ্ড ব্যথা। এ অবস্থায় কোন মতেই চুপচাপ বসে থাকা উচিত নয়। আগে থেকেই সাবধান হতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে দাঁতগুলো ঠিক সময়ে ঠিকঠাকমত উঠছে কিনা।

২৬ বছর বয়সের পরেও না উঠলে দাঁতের মায়া বাদ দেয়াই ভাল। সেক্ষেত্রে ডেন্টিস্টের পরামর্শ অনুযায়ী এক্সরে করিয়ে দাঁতের অবস্থান নির্ধারণ করে দাঁত ফেলে দিতে হবে নাকি সংরক্ষন করা যাবে সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নিতে হবে। নিয়মিত দাঁত ব্রাশ ও ফ্লোসিংসহ মুখ পরিস্কার রাখতে হবে। ইনফেকশন ভাল করার জন্য ডেন্টিস্টের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করতে হবে। দেরি না করে সঠিক চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।তা না হলে সবার পিছনে লুকিয়ে থাকা দাঁতটিই হয়তো অগোচরে ভাল দাঁতগুলো নষ্ট করতে থাকবে। তাই সাবধান থাকুন, আক্কেল দাঁত নিয়ে আক্কেল সেলামি দেয়া থেকে সতর্ক থাকুন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT