রেজি. নং- ১৯৬, ডিএ নং- ৬৪৩৪

বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

০৪:৩৮ অপরাহ্ণ

শিরোনাম
◈ দশমিনায় বাবাকে জবাই করে হত্যাকারী ছেলে ইমরান গ্রেফতার ◈ সরকারি অর্থ আত্মসাত ও স্বাক্ষর জালিয়াতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত ◈ ধীতপুর ইউনিয়ন তাতীঁলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন ◈ রাজশাহীতে বাসের ধাক্কায় সিএনজির চালকসহ আহত ৩ জন ◈ ধামইরহাটে মুজিববর্ষে ১৫০ গৃহহীন পাচ্ছে নতুন ঘর, দেখছে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন ◈ কুড়িগ্রামে শাক সবজী চাষে ঘুরে দাড়ানোর চেষ্টা কৃষকদের ◈ মোহনগঞ্জে সাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে যুবক নিহত ◈ দৌলতপুরে মোটরসাইকেল ও স্টারিং গাড়ি মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ ◈ ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে নাসিং হোম ক্লিনিকে ভূল চিকৎসায় প্রসূতি মায়ের মৃত্যু ◈ ডামুড্যার কিশোরী কাজল হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

অপকর্মে জড়িত নেতাদের শায়েস্তা করবে আ. লীগ

প্রকাশিত : ০৬:৫০ AM, ২ অক্টোবর ২০১৯ Wednesday ১০৭ বার পঠিত

আলোকিত সকাল রিপোর্ট :
alokitosakal

কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত দুর্নীতি, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজিসহ নানা অপকর্মে যুক্ত আওয়ামী লীগের নেতাদের নানা কৌশলে শায়েস্তা করার কথা ভাবছেন দলের নীতিনির্ধারকরা। দলে কোণঠাসা করার পাশাপাশি তথ্য-প্রমাণ সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে তাঁদের বিরুদ্ধে। অনেকের বিরুদ্ধেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করছে, যাতে গ্রেপ্তারের পর তাঁরা আইনের ফাঁক গলে পার পেয়ে যেতে না পারেন।

ক্যাসিনো-জুয়া ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে অভিযান শুরুর পর আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকজন নেতার অপকর্মে যুক্ত থাকার বিষয়টি বেরিয়ে আসে। তবে সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষায় অপকর্মে যুক্তদের ঢালাওভাবে গ্রেপ্তার করা হবে না। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকজন নেতা কালের কণ্ঠকে এমনটা জানিয়েছেন।

ওই নেতারা জানান, অপকর্মে জড়িতদের জন্য ব্যাপক উন্নয়নের পরও সরকার কাঙ্ক্ষিত জনপ্রিয়তা অর্জন করতে পারছে না। এ নিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা চরম ক্ষুব্ধ। ফলে তিনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অভিযান শুরুর নির্দেশ দেন।

অপকর্মে জড়িত দলের নেতাদের তালিকা করা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘তালিকার বিষয় নেই। সারা দেশে যারা অপরাধ-অপকর্ম করবে, প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একটা অভিযান চলছে, প্রতিদিনই কেউ না কেউ গ্রেপ্তার হচ্ছে, অনেকে নজরদারিতে আছে।’

গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘তালিকার বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলতে পারবে। তবে সারা দেশে অপকর্মের সঙ্গে যারা জড়িত তারা গোয়েন্দা নজরদারিতে আছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও খোঁজখবর নিচ্ছেন। তিনি এখন দেশে ফিরেছেন, এ অভিযান চলবে সে আভাস তিনি দিয়েছেন। এখন কার কার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন, তদন্তে চিহ্নিত দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন, এখন এটা স্পষ্ট হয়ে যাবে।’

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘যাঁরা অপকর্মে জড়িত, যাঁরা দলে অনুপ্রবেশকারীদের পৃষ্ঠপোষকতা দিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া যায়, তা নিয়ে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় সিদ্ধান্ত হবে। কিন্তু তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া কঠিন। কারণ আমাদের গুরুত্বপূর্ণ নেতারাই তাঁদের অনুপ্রবেশের সুযোগ করে দিয়েছেন।’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমরা আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারে লিখেছি—দুর্নীতির বিরুদ্ধে শূন্য সহনশীলতা দেখাব। ফলে এ মেয়াদে দুর্নীতি দমনে আমরা কঠোর অবস্থানে থাকব। এরই অংশ হিসেবে জুয়া, মাদকসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের ঘর থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। সব আন্দোলন-সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার ঐতিহ্যবাহী ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তিনি পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন। এটা কম কথা নয়। এর মধ্য দিয়ে অপশক্তিকে একটা কঠোর বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি কার্পেট দিয়ে ধুলা-ময়লা ঢেকে রাখতে চাননি। তিনি ময়লা-আবর্জনা দূর করে রাজনীতি ও সমাজে একটি সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছেন।’

কৃষিমন্ত্রী রাজ্জাক বলেন, ‘আমার দৃঢ়বিশ্বাস এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় অবস্থান অটল থাকবে। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগে কিছু নির্দেশনা দিয়ে যান। সেভাবেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পদক্ষেপ নিয়েছে। এখন অভিযান শুরুর পরের বাস্তবতা বিবেচনায় নিয়ে নতুন নির্দেশনা দেবেন।’

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ‘কিছু সুযোগসন্ধানী ব্যক্তি ও চক্র পরিকল্পিতভাবে অনুপ্রবেশ করে এবং আমাদের কোনো কোনো পরীক্ষিত অথচ হালকা জনপ্রিয়তা ও অভ্যন্তরীণ ক্ষমতালোভী ব্যক্তির প্রশ্রয়ে উন্নয়নমাতা শেখ হাসিনার মহৎ অর্জনকে কালিমালিপ্ত করেছে। তারা কেউই ছাড় পাবে না। অভিযান পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষসমূহ অপরাধীদের প্রকৃত তথ্য সংগ্রহ করছে। কারণ গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করার পর তারা যেন পার না পায়। অপরাধীদের শিকড় সমূলে উৎপাটন করা হবে। কেউ আইনের আওতায় পড়বে, কেউ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বিদায় হবে।’

দলের সম্পাদকমণ্ডলীর একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি-অপকর্মের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছেন। এখন এটাকে অব্যাহত রাখতে না পারলে আমরা তো কোথাও কথা বলতে পারব না। দলের দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে এ অভিযান তো সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পাবে না।’

আওয়ামী লীগের সূত্রগুলো জানায়, এরই মধ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর প্রভাবশালী একজন সদস্যকে কঠোর ভাষায় সতর্ক করে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। তাঁর বিরুদ্ধে ক্যাসিনো পরিচালনা, চোরাচালানসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। অপকর্মে জড়িয়ে পড়ায় যুবলীগের নেতৃত্বেও পরিবর্তন আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শেখ হাসিনা। আগামী কাউন্সিলে শেখ পরিবারের একজন সদস্যকে যুবলীগের চেয়ারম্যান করা হতে পারে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর একজন সদস্য কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সভাপতি ধীরে চলো নীতিতে কেন্দ্রীয় গুরুত্বপূর্ণ নেতা, যাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, তাঁদের শায়েস্তা করবেন। আগামী সম্মেলনে অপকর্মে জড়িত নেতারা বাদ পড়বেন। আবার জেলা, মহানগর, উপজেলা পর্যায়ের অনেক নেতার বিরুদ্ধেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নানা দিক চিন্তাভাবনা করে কৌশলী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি Alokito Sakal'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyalokitosakal@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

Alokito Sakal'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।




© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। Alokito Sakal | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, Design and Developed by- DONET IT